কৌশিক সেন, রায়গঞ্জ:  মড়ক লাগল না তো? অজানা রোগে একে এক পথ কুকুরের মৃত্যুতে এবার আতঙ্ক ছড়াল উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জে। সারমেয়দের বাঁচাতে প্রশাসনের কাছে ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন পশুপ্রেমীরা।

আরও পড়ুন: জঙ্গল লাগোয়া তাঁবুতে কোয়ারেন্টাইন, বন্যজন্তুর ভয়ে রাত জাগছেন পরিযায়ী শ্রমিকরা

রায়গঞ্জ শহরের সুকান্ত পল্লি এলাকায় থাকেন নারায়ণচন্দ্র সাহা। এলাকায় সমাজসেবী হিসেবে পরিচিত তিনি। নারায়ণবাবু জানিয়েছেন, 'কয়েক দিন আগে একটি কুকুরকে অসুস্থ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখি। ভেবেছিলাম, কেউ হয়তো কুকুরটিকে মেরেছে। চুরি কিংবা ডাকাতির ঘটনাও ঘটতে পারে। এলাকায় রাতপাহারা দিতে শুরু করি আমরা।' এরপর মঙ্গলবার সকালে যখন আরও তিনটি কুকুর অসুস্থ হয়ে পড়ে, তখন রীতিমতো আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। পশুপ্রেমীদের সংগঠন পিপলস ফর অ্য়ানিমালের সদস্যদের খবর দেওয়া হয়। শেষপর্যন্ত স্থানীয় কাউন্সিলরের উদ্যোগে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তিনটি কুকুরই মারা যায়।

আরও পড়ুন: 'আমরা তিনজনেই মৃত', কলকাতায় বাড়ি থেকে উদ্ধার বাবা-মা ও ছেলের দেহ

পিপলস ফর অ্যানিমালের উত্তর দিনাজপুর জেলার সম্পাদক গৌতম তান্তিয়া জানিয়েছেন, ক্য়ানাইন ডিসটেম্পার নামে রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছে কুকুরগুলি। রায়গঞ্জে বিভিন্ন এলাকায় এখনও পর্যন্ত ২৫ থেকে ৩০টি কুকুরের শরীরে এই রোগের উপসর্গ পাওয়া গিয়েছে। তাঁর আশঙ্কা, যেসব এলাকায় রোগ ছড়িয়েছে, সেখান থেকে অবিলম্বে সুস্থ কুকুরদের সরিয়ে ফেলতে হবে। না হলে সারমেয়দের মড়ক শুরু হবে। স্থানীয় কাউন্সিলর অভিজিৎ সাহা জানিয়েছেন, এলাকা জীবাণুমুক্ত করার শুরু হয়েছে। প্রাণীসম্পদ উন্নয়ন দপ্তরের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছেন তিনি।