করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশই যেন বাড়ছে। সারা বিশ্ব জুড়ে দাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে এই করোনা ভাইরাস। মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাস। ভারতেও হানা দিয়েছে এই মারণ ভাইরাস। একের পর এক আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ যেন বেড়েই চলেছে।আবারও এই নিয়ে উদ্বেগ শুরু হয়েছে সকলের মধ্যে। ইতিমধ্যেই  প্রায় ১০০টিরও বেশি দেশে ছড়িয়ে গেছেন এই ভাইরাস। ভারতেও ক্রমশ বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যেই ভারতে মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের। এমনকী বাংলাতেও ধরা পড়েছে এই করোনা ভাইরাস। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্তের মধ্যেও বাতিল হয়েছে একাধিক দুরপাল্লার ট্রেন। তার মধ্যে দক্ষিণ পূর্ব  শাখার একাধিক ট্রেন বাতিল করা হয়েছে।

আরও পড়ুন-ইরানের পর এবার কুয়ালালামপুর, কলকাতার ছাত্রীর কাতর আবেদনের ভিডিও হল ভাইরাল...

  • ২৪ ও ৩০ মার্চের হাওড়া-মুম্বই সিএসএমটি দুরন্ত এক্সপ্রেস।
  • ২৫ মার্চ ও ১ এপ্রিল মুম্বই সিএসএমটি -হাওড়া দুরন্ত এক্সপ্রেসও বাতিল করা হয়েছে ।
  • ২০ ও ২৭ মার্চের সাঁতরাগাছি-এমজিআর চেন্নাই সেন্ট্রাল সুবিধা স্পেশালও বাতিল।
  • বাতিল করা হয়েছে ২০ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত হাওড়া-দিঘা-হাওড়া সুপারফাস্ট এসি এক্সপ্রেস।
  • ২১ ও ২৭ মার্চের এমজিআর চেন্নাই সেন্ট্রাল-সাঁতরাগাছি সুবিধা স্পেশাল বাতিল  করা হয়েছে।
  • এছাড়াও চলবে না ২০ ও ২৭ মার্চের পুরী-সাঁতরাগাছি স্পেশাল।


দুরপাল্লার ট্রেন বাতিল করার পাশাপাশি লোকাল ট্রেনেও ভিড় করাতেও পদক্ষেপ নিয়েছে দক্ষিণ-পূর্ব রেল। ৪ জোড়া নতুন লোকাল ট্রেন চালানো হবে। ১৯ মার্চ থেকে এই ট্রেনগুলি চালু হবে। সাঁতরাগাছি থেকে উলুবেড়িয়া, পাঁশকুড়া, বাগনান, খড়গপুর পর্যন্ত এই ট্রেনগুলি। 

আরও পড়ুন-করোনা আতঙ্কের লেশমাত্র নেই, দিঘায় সমুদ্র স্নানে ব্যস্ত পর্যটকরা...


করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশই যেন বাড়ছে। সারা বিশ্ব জুড়ে দাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে এই করোনা ভাইরাস। মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাস।
করোনা ভাইরাসের  নামটা শুনলেই প্রত্যেকেই যেন আতঙ্কিত। যত দিন যাচ্ছে মহামারির আকার ধারণ করছে এই রোগ। যার জেরে জেরবার প্রশাসন।  করোনা আতঙ্কে ইতিমধ্যেই ভয়ে কাঁপছে চিন।  শুধু চিন নয়, চিনের পাশাপাশি ভারত সহ  দেশের বিভিন্ন প্রান্তে মুহূর্তের মধ্যে প্রবেশ করছে এই ভাইরাস।  একজনের থেকে আরেকজনের শরীরে ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাস।  মানুষের নিঃশ্বাস প্রশ্বাসের সঙ্গেই ছড়িয়ে যাচ্ছে এই রোগের জীবানু। কোনওভাবেই আটকানো যাচ্ছে না এই ভাইরাসকে। নোবেলা করোনা প্রকৃতির এই করোনা ভাইরাস। বিশেষজ্ঞরা বলছেন এটি আসলে ফ্ল্যাবিও ভাইরাস, যা খুব দ্রুত ছড়িয়ে যাচ্ছে।  হু হু করে বাড়ছে মৃত্যু সংখ্যা। সার্সের মতোই ভয়ঙ্কর এই ভাইরাস ।