রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা চেপে যাচ্ছেন। মৃতের সংখ্যা আড়াল করছেন। এই অভিযোগ তুলে বেশ কয়েক দিন ধরেই রাজ্য রাজনীতিতে তোলড়াপাড় ফেলে দিয়েছিল বিরোধীরা। এবার আর শুরু অভিযোগ নয়। মুর্শিদাবাদের কংগ্রেস সাংসদ তথ্য প্রমান দিয়েই  নিশানা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। নিজের অভিযোগের সপক্ষে মুর্শিবাদার হাসপাতালে গত ২৫ এপ্রিল পাঠান রাজ্য সরকারের একটি নির্দেশিকার কথা তুলে ধরেন তিনি। 

 

এই নির্দেশিকার প্রতিলিপি দিয়েছেন মুর্শিদাবাদের কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরী। 

অধীররঞ্জন চৌধুরীর কথায় রাজ্য সরকারের পাঠান নির্দেশিকায় বলা হয়েছে মৃত্যুর কারণ করোনাভাইরাস সংক্রমণ লেখা যাবে না। লিখতে হবে কোনও সাধারণ কারণ। একই সঙ্গে কোনও ব্যক্তি আক্রান্ত হলেও চরম ছোঁয়াচে এই ভাইরাসের কথা লেখা যাবে না। অধীর চৌধুরীর কথায় রাজ্য সরকারে এই প্রবনতা মারাত্মক পরিণাম ডেকে নিয়ে আসছে। কারণ এই জীবানু খুব দ্রুত গতিতে ছড়াচ্ছে। তাই তথ্য আড়াল করলে বিপদ আরও বাড়তে পারে। 

 

 

একই সঙ্গে অধীরের প্রশ্ন করোনা আক্রান্তের তথ্য আর মৃতের সংখ্যা কেন আড়াল করতে চাইছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর কথায় করোনা এক অদৃশ্য ভয়ঙ্কর দৈত্যের  নাম। আক্রান্ত আর মৃতের সংখ্যায় হেরাফেরি করা হচ্ছে। কেন বাংলার মানুষের সঙ্গে লুকোচুরি করা হচ্ছে বলে প্রশ্ন তোলেন অধীর। তাঁর কথায় কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক দল আসার পরই আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। অবিলম্বে বাংলার মানুষকে সাবধান হতে হবে বলেও আহ্বান জানিয়েছেন কংগ্রেস সাংসদ। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী রাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৮৪।

আরও পড়ুনঃ হাইড্রোক্লোক্সিসকুইনিন নিয়ে কি এখনও গোঁসা ট্রাম্পের, মোদীকে আনফলো করল হোয়াইট হাউস .

আরও পড়ুনঃ বিশ্বের ১৮৪টি দেশ নরকে যেতে বসেছে, মৃতের সংখ্যা ৫৯ হাজার পার করার পর আবারও ট্রাম্পের নিশানায় চিন ...

আরও পড়ুনঃ আরোগ্য সেতু 'নিরাপদ' বললে তবেই অফিসে ঢোকা যাবে, না হলে হোম কোয়েরেন্টাইন, নয়া নির্দেশিকা কেন্দ্রের ...