Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Murder Case- গোষ্ঠীদ্বন্দের জেরে খুন হলেন তৃনমূলের কর্মী, গ্রেফতার ৮, উত্তাল বাঁকুড়া

গোষ্ঠীদ্বন্দের জেরে খুন হলেন তৃণমূলের কর্মী বিপ্লব রায়। রাজনৈতিক কারণ নাকি ব্যক্তিগত কারণেই এই হত্যাকাণ্ড খতিয়ে দেখা হচ্ছে, ইতিমধ্য়েই এই ঘটনায় ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

 

Police have arrested 8 people in connection with the murder of a TMC worker in Bankura RTB
Author
Kolkata, First Published Oct 31, 2021, 2:11 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

গোষ্ঠীদ্বন্দের জেরে খুন হলেন তৃনমূলের এক কর্মী (TMC Worker)। ঘটনা বাঁকুড়ার তালডাংরা থানার মান্ডি গ্রামের। জানা গিয়েছে, মৃত তৃনমূল কর্মীর নাম বিপ্লব রায় (TMC Worker Biblab Roy)। রাজনৈতিক কারণ নাকি ব্যক্তিগত কারণেই এই হত্যাকাণ্ড খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ইতিমধ্য়েই এই ঘটনায় ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ (Bankura Police)। 

আরও পড়ুন, Manohar Pukur Murder- বেকারত্ব নাকি অসুখী দাম্পত্য, কী কারণে স্ত্রী-কে খুন করলেন স্বামী

পরিবারের দাবি, শনিবার রাত দশটা নাগাদ মান্ডি গ্রামের রাস্তার ধারে কয়েকজনের সঙ্গে বসে গল্প করছিলেন পেশায় কৃষি সেচ দফতরের কর্মী ও এলাকার সক্রিয় তৃনমূল কর্মী বিপ্লব রায়। আচমকাই কয়েকজন লাঠি নিয়ে বিপ্লব রায় এর উপর হামলা চালিয়ে বেধড়ক মারধর করে । এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষে গুরুতর জখম হন বিপ্লব রায়।  গুরুতর আহত অবস্থায় পরবারের লোকজন বিপ্লব রায়কে উদ্ধার করে বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করে। পরিবারের দাবি  রাজনৈতিক ক্ষমতা দখল নিয়ে তৃনমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরেই দ্বন্দ চলছিল। তার জেরেই খুন হয়েছেন বিপ্লব রায়। সুত্রের খবর তৃনমুলের এক গোষ্ঠী যারা গত বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির পক্ষে ভোট করেছিলেন এরপরে ফের তারা তৃণমূলে ফিরতে চাইলে এই নিয়ে ওই এলাকায় একটা ঠান্ডা লড়াই চলছিল।  এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই তদন্তে নেমছে তালডাংরা থানার পুলিশ ।

আরও পড়ুন, Roshni Ali- হাইকোর্টে বাজি নিষিদ্ধ করার আর্জির পিছনে কে এই রোশনি আলি

রাজনৈতিক কারণ নাকি ব্যক্তিগত কারণেই এই হত্যাকাণ্ড খতিয়ে দেখা হচ্ছে।  ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে ধৃতদের জেরা করে ঘটনার উন্মোচন ঘটবে। চলতি জুলাই মাসেই মঙ্গলকোটে তৃণমূল নেতাকে নৃশংস ভাবে খুন করা হয়। এই ঘটনায় প্রথমে বিজেপির দিকেই আঙুল ওঠে। মঙ্গলকোটে তৃণমূল নেতা খুনের ঘটনা দুঃখজনক,   জানান বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।   তদন্ত না করে এমন অভিযোগ করা উচিত না বলেও জানিয়েছিলেন তিনি। সম্পূর্ণ ঘটনার তদন্তেরও দাবি জানিয়েছিলেন তিনি। মার্চে মাসে তৃণমুল কংগ্রেসের অপর এক নেতা খুনের ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। ওই ঘটনা গ্রেফতার হন আবার একজন সেনাবাহিনীর এক জওয়ান । রায়গঞ্জ থানার লক্ষনীয়ার ঝুমঝুমিয়ায় তৃনমূল নেতা মহম্মদ আলি খুনের ঘটনায় তাঁর ভাইপো সেনা জওয়ান  শাহনাজ আলিকে গ্রেফতার করা হয়। উত্তরপ্রদেশের তালবেহাট ললিতপুর ইউনিট থেকে গ্রেফতার করা হয় তাঁকে। ছুটিতে এসে ভাইয়ের সাঙ্গে মিলে ২৬ জানুয়ারি রাতে শাহনাজ তাঁর কাকা মহম্মদ আলিকে গুলি করে করে খুন করেন। ঘটনার পরদিনই শাহনাজ আলির ভাই সিকেন্দর আলিকে গ্রেফতার করে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ ।

আরও দেখুন, বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ  

আরও দেখুন, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গা, থাকল ছবি সহ ঠিকানা  

আরও দেখুন, মাছ ধরতে ভালবাসেন, বেরিয়ে পড়ুন কলকাতার কাছেই এই ঠিকানায়  

আরও পড়ুন, ভাইরাসের ভয় নেই তেমন এখানে, ঘুরে আসুন ভুটানে  

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios