লকডাউনে কি এবার ধৈর্য্য হারাচ্ছে আমজনতা? ভিড় সরাতে দিয়ে ফের আক্রান্ত হলেন পুলিশকর্মীরা। ভাঙচুর চলল পুলিশের এক টহলদারি বাইকেও। জখম দু'জন পুলিশকর্মী। এবার ঘটনাস্থল, বীরভূমের সিউড়ি। ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছেন তিনজনকে।

আরও পড়ুন: টিকিয়াপাড়ায় পুলিশ পিটিয়ে জেলে সাকির, বাড়িতে ত্রাণ পৌঁছল প্রশাসন

শনিবার রাতের ঘটনা। জানা দিয়েছে, সিউড়ি হুসনাবাদের ডাঙ্গালপাড়া এলাকায় রাতে পাঁচটি বাইকে চেপে টহল দিচ্ছিলেন পুলিশকর্মীরা। বাইকবাহিনীর নেতৃত্বে ছিলেন ওসি(ট্রাফিক) সুমন প্রামাণিক। তখন লকডাউন ভেঙে এলাকায় জমায়েত করেছিলেন বেশ কয়েকজন। টহলরত পুলিশকর্মীরা যখন ভিড় সরাতে যান, তখনই ঘটে বিপত্তি। প্রথম দিকে পিছু হটলেও. শেষপর্যন্ত শুরু হয় ইঁটবৃষ্টি। ঘটনার আকস্মিকতায় হতবাক হয়ে যান পুলিশকর্মীর। ইঁটের ঘায়ে গুরুতর জখম হন দু'জন। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে পুলিশকর্মীরা বাইক ফেলে পালিয়ে যান।  এরপরই ওই বাইকটিকে রাস্তায় ফেলে উন্মুত্ত জনতা ভাঙচুর চালায় বলে অভিযোগ। খবর পেয়ে বিশাল পুলিশ বাহিনী নিয়ে ঘটনাস্থলে যান ডিএসপি অভিষেক মণ্ডল ও  সিউড়ি থানার আইসি চন্দ্রশেখর দাশ। রাতেই তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃতদের ৬ মে পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

আরও পড়ুন: স্বস্তি পেল স্বাস্থ্য দফতর, সুস্থ হয়ে ফিরলেন করোনা আক্রান্ত ৬ আরপিএফ জওয়ান

আরও পড়ুন: ধুয়েমুছে সাফ সব করোনা, কলকাতা-বাসন্তী হাইওয়েতে রবিবার স্যানিটাইজার স্প্রে করল রাজ্য দমকল বিভাগ

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগে কর্তব্যরত পুলিশকর্মীদের হামলার ঘটনায় রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছিল হাওড়া টিকিয়াপাড়া। ঘটনার দিন বিকেলে লকডাউন ভেঙে  রাস্তায় বেরিয়ে পড়েছিলেন বহু মানুষ।  রীতিমতো ভিড় জমে গিয়েছিল টিকিয়াপাড়ার বেলিলিয়াস রোডে। ভিড় সরাতে গেলে জনরোষের মুখে পড়েন কর্তব্যরত পুলিশকর্মীরা। তাঁদের লক্ষ্য  শুরু হয় ইঁটবৃষ্টি, ছোঁড়া হয় বোতলও।  গুরুতর আহত হন দু'জন। ভাঙচুর চলে পুলিশের দুটি গাড়িতেও। পরিস্থিতি এতটাই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যে, ব়্যাফ নামাতে হয়। সেই ঘটনাতেও মূল অভিযুক্ত-সহ বেশ কয়েকজন গ্রেফতার করেছে পুলিশ।