আশিষ মণ্ডল, বীরভূম: বাঘ নয় তো? অজানা জন্তুকে ঘিরে আতঙ্ক ছড়িয়েছে বীরভূমের সিউড়িতে। এলাকায় রাতে পাহারার বন্দোবস্ত করেছে বনদপ্তর। জন্তুটির যদি হদিশ পাওয়া যায়, তাহলে খাঁচা পাতা হবে বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: করোনা আবহে একের পর এক পথ কুকুরের মৃত্যু, আতঙ্ক ছড়াল রায়গঞ্জে

ঘটনার সূত্রপাত রবিবার। সেদিন রাতে বাড়ি ফিরে ফিরছিলেন সিউড়ির পলসিটা গ্রামের যুবক রোহন মণ্ডল। তাঁর দাবি, গ্রামের রাস্তায় কালো হলুদ ডোরাকাটা বিশালাকার একটি জন্তুকে দেখতে পান। খবর পেয়ে আরও কয়েকজন যখন ঘটনাস্থলে যান, তখনও নাকি জন্তুটি জলাজমিতে বসেছিল! ঘটনাটি জানাজানি হতে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। খবর দেওয়া হয় সিউড়ি থানা ও বনদপ্তরে। যিনি প্রথমে জন্তুটিকে দেখেছিলেন, সেই রোহন মণ্ডল বলেন, 'রবিবার রাত নটা নাগাদ সিউড়ি থেকে বাড়ি ফিরছিলাম। বাড়ি ঢোকার মুখে জলাজমির পাশে প্রায় সাড়ে তিন ফুটের ওই বিশালাকায় জন্তুটি দেখতে পায়। দেরি না করে গ্রামের সবাই ঘটনাটি জানাই।'

আরও পড়ুন: জঙ্গল লাগোয়া তাঁবুতে কোয়ারেন্টাইন, বন্যজন্তুর ভয়ে রাত জাগছেন পরিযায়ী শ্রমিকরা

বনদপ্তরের উপ বনাধিকারিক বিজন নাথ বলেন, 'বাঘ নয়, পায়ের ছাপ ও বর্ণনা শুনে মনে হচ্ছে, এলাকার বাঘরোল  ঢুকেছে। যাকে ফিশিং ক্যাট বলা হয়। প্রতিরাতে গ্রামে দু'জন বনকর্মী পাহারা দিচ্ছেন। জন্তুটিকে দেখা গেলে ফাঁদ পাতা হবে।' তবে বন দপ্তরের আধিকারিক যাই বলুন না কেন, সিউড়ির পলসিটা গ্রামেক আতঙ্ক ছড়িয়েছে যথেষ্টই। আতঙ্ক এতটাই যে, করোনাও হার মেনেছে!