মিঠু সাহা, শিলিগুড়ি:  করোনা ভাইরাসে ভেঙেছে 'সুখের সংসার'। স্বামীকে হারিয়ে দুই সন্তান-সহ রেললাইনে ঝাঁপ দিলেন  মহিলা। বরাতজোরে রক্ষা পেয়েছে সকলেই। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে শিলিগুড়ির এনজেপি স্টেশনে। 

আরও পড়ুুন: 'পরমাত্মার সঙ্গে মিলিত হতে চললাম', বলাগড়ে মা ও ছেলের মৃত্যুতে ঘনাচ্ছে রহস্য

ফের কি লকডাউন জারি হবে? সম্ভাবনা জোরালো হচ্ছে ক্রমশই। আনলক পর্বে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যায়। উত্তরবঙ্গের মালদহে পরিস্থিতি রীতিমতো ভয়াবহ। জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা আটশো ছাড়িয়ে গিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৪৭ জন। করোনা পজিটিভি রিপোর্ট এসেছে হবিবপুর ও কালিয়াগঞ্জ থানার আইসি-সহ চারজন পুলিশকর্মী এমনকী, মালদহ সদরের মহকুমাশাসকেরও। বুধবার ফের লকডাউন জারি করা হয়েছে পুরাতন মালদহ ও ইংরেজ বাজাক পুর এলাকায়। করোনা সংক্রমণ ছড়াচ্ছে শিলিগুড়িতেও।

আরও পড়ুন: কীসের ভয়, বুধবার থেকে তালা রাজ্য় বিজেপির সদর দফতরে

জানা গিয়েছে, গত বেশ কয়েকদিন ধরেই শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন এক ব্যক্তি। পেশায় তিনি প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক, থাকতেন প্রধাননগর এলাকায়। করোনা পরীক্ষার জন্য তাঁর লালারস বা সোয়াহ সংগ্রহ করে চিকিৎসকরা। করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। সোমবার গভীর রাতে রোগী মারাও যান। মঙ্গলবার দুপুরে দুই সন্তানকে নিয়ে শিলিগুড়ি লাগোয়া এনজেপি স্টেশনে চলে যান মৃতের স্ত্রী। এরপর তিনজনে ঝাঁপ দেন রেললাইনে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁদের প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় একটি নার্সিংহোমে। পরে স্থানান্তরিত করা হয় উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে।  স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, স্বামীকে হারিয়ে সন্তানদের আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন ওই মহিলা। ঘটনার তদন্তে নেমেছে শিলিগুড়ি মেট্রোপলিটান পুলিশ।