বুধবার বিকেলের মধ্যেই স্থলভাগে আঁছড়ে পড়তে চলেছে আমফান। সতর্কতা সর্বত্র জারি করা হয়েছে, চলছে মাইকিং। বুধবার রাজ্যের রেড অ্যালার্ট জারি হওয়া জেলা ও শহরের বাসিন্দাদের বাড়ি থেকে বেরতে মানা করা হয়েছে। ঘণ্টায় ২০ কিলোমিটার বেগে এগিয়ে আসছে আমফান। ঝড়ের তীব্রতা ছাপিয়ে যাবে ফণী ও আয়লাকেও। ফলে আগে থেকেই একাধিক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকার ও কেন্দ্রের পক্ষ থেকে। 

অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতেই বুধবার ও বৃহস্পতিবারের শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। ঝড়ের তীব্রতায় উল্টে যেতে পারে কামরা। তাই মঙ্গলবার উদ্ধব ঠাকরের সরকার ঘোষণা করেছিলেন বাংলা ও ওড়িশার শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেন পরিষেবা বন্ধ রাখা হবে। করোনার জন্য দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। বিভিন্ন রাজ্যে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের রাজ্যে ফেরানোর জন্য বেশ কয়েকদিন ধরেই চলছে শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেন। 

আরও পড়ুনঃ Cyclone Amphan live updates: বাংলায় আছড়ে পড়তে চলেছে আমফান, দিঘার সমুদ্রতট থেকে ক্রমশই কমছে দূরত্ব

আমফানের মুখে দুদিন সেই ট্রেন বাংলা ও ওড়িশাতে ঢুকবে না। ট্রেনের তালিকাতে ছিল এই দুদিন মোট তিন, একটি বাংলার আসছিল অন্য দুটি আসার কথা ছিল ওড়িশাতে। কিন্তু দুদিন তা স্থগিত রাখা হয়। প্রতিটি ট্রেনে কম পক্ষ্যে ১৫০০ শ্রমিকের থাকার কথা ছিল। বাতিল হওয়া ট্রেনের পরিবর্তিত সময়সূচি জানিয়ে দেওয়া হবে শীঘ্রই। মঙ্গলবার বিকেলে নবান্নতে বৈঠক করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীও জানিয়েছিলেন, স্থগিত রাখা মানুষকে হোক রাজ্যে ফেরানোর কাজ। বন্ধ রাখা হোক সকল দোকান, পরিবহন। 

করোনা মোকাবিলায় রক্ষা করুন নিজেকে, মেনে চলুন 'হু' এর পরামর্শ

সাবধান, করোনা আতঙ্কের মধ্যে এই কাজ করলেই হতে পারে জেল

কী করে করোনার হাত থেকে রক্ষা করবেন আপনার বাড়ির বয়স্ক সদস্যদের, রইল তারই টিপস

শরীরে কীভাবে থাবা বসায় করোনা, জানালেন বিশেষজ্ঞরা