বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি ক্রমেই উদ্বেগজনক হচ্ছে। এরমধ্যে লকডাউন তুলে দেওয়ায় ক্রমেই বাড়ছে সংক্রমণ। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা পজিটিভ হয়েছেন ২৭৩৫ জন। ফলে শেখ হাসিনার দেশে বর্তমানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬৮ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। 

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৪২ জনের। যার পলে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৯৩০। এই অবস্থায় দেশের ৫২টি ল্যাবে করোনা পরীক্ষা করাচ্ছে বাংলাদেশ সরকার। গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ৯৪৪ টি নমুনার পরীক্ষা করা হয়েছে। বাংলাদেশে এখনও পর্যন্ত কোভিড ১৯ সনাক্ত করতে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৪ লক্ষের বেশি। 

ইমরানের দেশে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে যোগী, পাক মিডিয়াকে একেবারে ফ্যান বানিয়ে ফেললেন আদিত্যনাথ

মাত্র ৩ মাসেই মারণ ভাইরাসের সঙ্গে লড়াইয়ে জিত, এবার করোনা মুক্ত রাষ্ট্র হল নিউজিল্যান্ড

বিশেষ সম্প্রদায়ের মানুষের চিকিৎসা নয় , স্বাস্থ্যকর্মীদের হোয়াটস অ্যাপ চ্যাট ফাঁস হল রাজস্থানে

এই অবস্থায় বাংলাদেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের সার্বিক পরিস্থিতি দেখতে চিন থেকে ১০ জনের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের দল এল ঢাকায়। দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন অতিথিদের স্বাগ জানাতে যান। 

চিনের স্বাস্থ্য কমিশন চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞদের নিয়ে গড়া এই প্রতিনিধি দলটিকে বাংলাদেশ সফরের জন্য পাঠিয়েছে বলে চিনা দূতাবাস সূত্রে জানান হয়েছে। এই প্রতিনিধি দলের সদস্যদের নির্বাচিত করেছে চিনের হাইনান প্রাদেশের স্বাস্থ্য কমিশন। বাংলাদেশে ২ সপ্তাহ থাকবে এই প্রতিনিধি দলটি। এই সময়ের মধ্যে করোনাভাইরাস চিকিৎসার জন্য নির্ধারিত হাসপাতাল, কোয়ারেন্টাইন কেন্দ্র ও পরীক্ষাগারগুলি পরিদর্শন করবেন চিনা চিকিৎসকরা। পাশাপাশি হাসিনার দেশের করোনা রোগীদের চিকিৎসাও করবেন তাঁরা। 

গত মাসের ২০ তারিখ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং-এর টেলিফোনে কথা হয়। ওই সময়ই করোনাভাইরাস মোকাবিলার বাংলাদেশকে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছিলেন চিনা প্রেসিডেন্ট। পাশাপাশি বাংলাদেশের কোভিড ১৯ পরিস্থিতি মোকাবিলায় ২৫০ মিলিয়ন ডলার ঋণের ঘোষণাও করেন শি জিনপিং।