বাংলাদেশের চাঁদপুরের মতলব পৌরসভার অন্তর্গত একটি মসজিদের এক ইমামের ঘর থেকে উদ্ধার হয়েছে হয়েছে তিনটি শিশুর মৃতদেহ। ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য শুরু হয়েছে গোটা এলাকায়ে। ঘটনার খবর পেয়েই সেখানে গিয়ে উপস্থিত হয় পুলিশের একটি দল। মৃতদেহগুলিকে উদ্ধার করে নিয়ে পাঠানো হয়েছে ময়না তদন্তের জন্য। 

প্রাথমিক অনুমানের জেরে পুলিশের তরফে মনে করা হয়েছে বিষয়টি অত্যন্ত সন্দেহজনক। মতলব পৌরসভার অন্তর্গত পূর্ব কালাদির জামে মসজিদ-এর যে ঘরের মধ্যে থেকে তিনটি শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছিল, সেই ঘরের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ করা ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে আরও খবর, ওই তিন শিশুর মৃতদেহে কোনও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। 

জানা গিয়েছে, মৃত ওই তিন শিশুর নাম আবদুল্লা আল নোমান (বয়স ৬ বছর), ইব্রাহিম (বয়স ৮ বছর) এবং রিফাত হোসেন (বয়স ১০ বছর)। পূর্ব কালাদির জামা মসজিদের ইমাম জামাল উদ্দিন-এর ছেলে হল আবদুল আল নোমান। রিফাত ও ইব্রাহিম মতলব পৌরসভার মাদ্রাসার তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিল বলে জানা গিয়েছে। 

মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে আত্মঘাতী পুলিশকর্মী, মৃত্যু ঘিরে ঘনাচ্ছে রহস্য

৩৭০ ধারা বিলোপের আগে বিরাট আয়োজন, মোদীর উদ্যোগে করা হয়েছিল বিশেষ হোম-যজ্ঞ

স্ত্রীর নাম থাকবে কি এনআরসি তালিকায়, আতঙ্কে আত্মঘাতী স্বামী

ইমাম জামাল উদ্দিন-এর কথায়, ঘটনার দিন বেলা একটা নাগাদ নামাজ পড়ানো শেষ করে ফিরে এসে দেখেন তাঁর ঘরের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ। অনেক ডাকাডাকি করেও কেউ দরজা খোলা হয়নি। এরপর লোকজন জড়ো করে দরজা খুলে তিনজন শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। 

এখনও পর্যন্ত মৃত্যুর সঠিক কারণ কী তা খুঁজে বের করা যায়নি। ঠিক কী কারণে এবং কোন পরিস্থিতিতে এমন ঘটনা ঘটেছে তাও জানা যায়নি। মৃত শিশুর মুখ থেকে গ্যাঁজলা বের হতে দেখে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান তাঁদের খাবারে বিষক্রিয়া থেকেও মৃত্যু হতে পারে।