দিন কয়েক আগে চেন্নাইয়ের একটি সেনা ছাউনিতে বচসার জেরে নিজের সহকর্মী এর হাবিলদারকে খুন করে আত্মঘাতী হয়েছিল এক সেনা জওয়ান। আর এবার এমনই ঘটনা ঘটল বাংলাদেশেও। বাংলাদেশের কুড়িগ্রামে এক পুলিশ আধিকারিক নিজের বাসভবনে নিজের সার্ভিস রিভলবার দিয়ে মাথায় গুলি করে আত্মঘাতী হওয়ার খবর পাওয়া গেল। 

কুড়িগ্রাম সদর থানার এসআই কামরুজ্জমান জানিয়েছেন, মৃতের নাম সেলিম জাহাঙ্গির। ৩৫ বছর বয়সী এই সাব ইন্সপেক্টর বুধবার নিজের বাড়িতেই নিজের সার্ভিস রিভলবার মাথায় ঠেকিয়ে আত্মঘাতী হন বলে জানান তিনি। প্রসঙ্গত, ২০০৭ সালে পুলিশের চাকরিতে একজন কনস্টেবেল হিসাবে যোগ দেন তিনি। এরপর পদোন্নতির মধ্যে দিয়ে গিয়ে এসআই পদে নিযুক্ত হয়েছিলেন তিনি। 

লক্ষ্য সুস্থ ভারত গড়ে তোলা, জাতীয় ক্রীড়া দিবসে ফিট ইন্ডিয়া অভিযানের সূচনায় মোদী

দূষণমুক্ত ভারত গড়তে তৎপর মোদী সরকার, ২ অক্টোবর থেকে নিষিদ্ধ এইসব প্লাস্টিক সামগ্রী

কাশ্মীর নিয়ে এত কান্নাকাটি কীসের, লে-তে গিয়ে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সরব রাজনাথ

পুলিশকর্মীর এমন রহস্যজনক মৃত্যুর বিষেয়ে জেরার মুখে বিস্ময়কর তথ্য দিয়েছে তার আট বছরের ছেলে। তার কথায়, এদিন বাড়িতে বসেই নিজের সার্ভিস রিভলভারটি পরিষ্কার করছিল তার বাবা। তবে আচমকাই নিজের মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে ট্রিগার টেনে দেয় সে। আর তারপর চোখের নিমেষেই মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে তার বাবা। 

গুজরাতে প্রবেশ করতে পারে পাক কমান্ডো বাহিনী, কচ্ছ উপকূলে জারি কড়া সতর্কতা

তাঁর এইভাবে আত্মঘাতী হওয়ার কারণ এখনও ধোঁয়াশাতেই। ঠিক কী কারণে এই ঘটনা ঘটেছে তা নিয়ে এখনও ধন্দে তদন্তকারীরা। বাড়িতে রয়েছেন তাঁর সন্তানসম্ভবা স্ত্রীও। তাঁর স্ত্রীর সঙ্গেও তাঁর সম্পর্কে কোনও সমস্যা ছিল না বলেই মনে করছেন তদন্তকারী দল। তবে ওই পুলিশকর্মীর বাবা-মায়ের সঙ্গে তাঁর কিছু সমস্যা হচ্ছিল বলে মনে করা হচ্ছে। তাঁর আত্মহত্যার কারণ খতিয়ে দেখতে জারি রয়েছে তদন্ত।