করোনার জেরে ভারতের বুকে একাধিক রাজ্যে ইতিমধ্যেই বন্ধ করা হয়েছে শ্যুটিং, সিনেমাহল। সেই তালিকাতে এবার নাম লেখাল বাংলা। এখনও পর্যন্ত করোনা ঠেকাতে একাধিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বিভিন্ন সরকারের পক্ষ থেকে। মুম্বাইয়ে ইতিমধ্যেই বন্ধ একাধিক ছবির শ্যুটিং। পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে বেশ কিছু ছবির মুক্তির দিনও। করোনা ঠেকাতে দফায় দফায় বৈঠকে বসেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই তিনি আবেদন জানিয়েছিলেন সোমবার যে বন্ধ রাখতে হবে রাজ্যের অডিটোরিয়াম ও থিয়েটারগুলিকে। থিয়েটারগুলি বন্ধের সিদ্ধান্ত নিশ্চিত করা হলেও, এখনও পর্যন্ত এই নিয়ে কোন সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়নি অডিটোরিয়াম কতৃপক্ষের তরফ থেকে। 

আরও পড়ুন-শরীরে নেই এক টুকরো সুতো, নগ্ন সৌন্দর্যে বাজিমাত রাইমার

এরই মাঝে শ্যুটিং নিয়ে ধন্দে ছিল বাংলার চলচ্চিত্র জগত। বেশ কিছু ছবির শ্যুটিং বন্ধ রাখা হয়েছিল ইতিমধ্যেই। শ্যুটিং করতে বাংলাদেশে পাড়ি দেননি অভিনেতা দেব। আবার কাকাবাবুর শ্যুটিং করতে গিয়ে আফ্রিকাতে আটকে রয়েছেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। টলিপাড়ার শ্যুটিং-ও এক প্রকার স্থগিত। এই নিয়ে বিস্তারিত মিটিং করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে মঙ্গলবার। 
তবে এখনই বন্ধ করতে হবে রাজ্যের সব সিনেমাহল।

আরও পড়ুন-করোনাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে চুম্বনে মত্ত বলি তারকারা, দেখুন ছবিতে

আরও পড়ুনঃ আছড়ে পড়ছে সমুদ্রের ঢেউ, তার মাঝেই রবীন্দ্র সঙ্গীতের নৃত্য পরিবেশন রোদ্দুর রায়-এর

এতদিন শোনা গিয়েছিল কয়েকটি শো চলবে। বন্ধ থাকবে দিনের বেশিরভাগ শোই। কিন্তু করোনা নিয়ে কোনও রকম ঝুঁকি এড়াতে নারাজ সরকার। ফলে তরিঘরি বন্ধ করে দেওয়া হল রাজ্যের সিনেমাহলগুলি। পাশাপাশি বন্ধের মুখে ছবি ও টেলিপাড়ার শ্যুটিং। একটি শ্যুটিং চলাকালিন কেবল মাত্র অভিনেতারাই থাকেন না, সেখানে প্রযোজনা সংস্থার একাধিক সদস্যরা থাকে। তাঁদের জমায়েত এড়াতেই এবার শ্যুটিং বন্ধের সিদ্ধান্ত। পাশাপাশি ৩১ মার্চ পর্যন্ত যাঁরা ছবির দেখার জন্য টিকিট কেটেছিলেন তাঁদের ফিরিয়ে দেওয়া হবে টিকিট মূল্য।