করোনা আবহে নিশানায় খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর সম্পর্কে সোশ্যাল মিডিয়ায় কুরুচিকর মন্তব্য করে বিপদে পড়লেন এক যুবক। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে হুগলির হিন্দমোটরে। 

আরও পড়ুন: পরিকল্পনামাফিকই কি পুলিশের উপর হামলা, জল্পনা উসকে দিলেন রাজ্যের মন্ত্রী

লকডাউনে বাজারে ত্রাণ নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছে। শাসকদলের নেতা-মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে রেশনের সামগ্রী চুরির করারও অভিযোগ তুলেছে বিরোধীরা। করোনা আক্রান্তরা ঠিকমতো চিকিৎসা পাচ্ছেন তো? এইসব নিয়েই টুইট করে ক্ষোভ উগরে দেন হিন্দমোটরের যুবক সেতু কীর্তনিয়া। শুধু তাই নয়, খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায় সম্পর্কে সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি কুরুচিকর মন্তব্য করে বলে অভিযোগ। ঘটনাটি জানাজানি হতেই শোরগোল পড়ে যায় এলাকায়। সমালোচনার ঝড় ওঠে। 

এখানেই শেষ নয়। তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে সেতু কীর্তনীয়া বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয় উত্তরপাড়ায় থানায়। তদন্তে নেমে হিন্দমোটর থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তৃণমূলের হুগলি জেলার সভাপতি দিলীপ যাদব বলেন, সোশ্যাল মিডিয়া কুরুচিকর মন্তব্য করে মুখ্যমন্ত্রীর ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করেছেন ওই যুবক। পরিকল্পনামাফিক বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে। এদের সমাজের শক্র হিসেবে চিহ্নিত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

আরও পড়ুন: কাটল 'অচলাবস্থা', রামপুরহাট স্টেশনে ভবঘুরেদের জায়গা দিল আরপিএফ
 

আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় আগাম সতর্কতা, আরামবাগ শহরের প্রবেশপথে বসল লকগেট

উল্লেখ্য, চলতি মাসের গোড়ার দিকে করোনা মোকাবিলায় দেশবাসীকে বাড়িতে ৯ মিনিট প্রদীপ জ্বালিয়ে রাখার আহ্বান জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এরপর সোশ্যাল মিডিয়ায় খোদ প্রধানমন্ত্রীকেও ট্রোলিং-এর শিকার হতে হয়। সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের মেয়ে মোদি সম্পর্কে 'কুরুচিকর' মন্তব্য করেন। তাঁর বিরুদ্ধে রাজ্য পুলিশের সাইবার ক্রাইম সেলে অভিযোগ দায়ের করে বিজেপির যুব মোর্চা।