লকডাউনের জেরে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাচ কোহলি। দীর্ঘ দিন মাঠের বাইরে থাকায় ক্রিকেটে ফেরার জন্য ব্যাকুল হয়ে উঠেছিলেন। বাড়িতে চালিয়ে যাচ্ছিলেন ফিটনেস ট্রেনিংও। আইপিএল শুরু খবরে ফিরেছিল স্বস্তিও। কিন্তু তার আগেই চরম অস্বস্তিতে পড়লেন বিরাট কোহলি। তার গ্রেফতারির আবেদন জানিয়ে মাদ্রাজ হাইকোর্টে মামলা করলেন এক আইনজীবী। কিন্তু কেনও হঠাৎ বিরাট কোহলির বিরুদ্ধে মামলা?কি এমন করলেন বিরাট কোহলি?

আরও পড়ুনঃপরিবারের সাথে থেকে আইপিএল খেলবেন ক্রিকেটাররা, এমনটাই আর্জি ফ্রাঞ্চাইজিদের

অনলাইন জুয়ার বিজ্ঞাপন করার জন্য বিরাটের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন ওই আইনজীবী। শুধু বিরাট কোহলি নন, অভিনেত্রী তামান্না ভাটিয়ার বিরুদ্ধেও দায়ের হয়েছে পিটিশন। দুজনকে গ্রেফতারির দাবিও জানিয়েছেন মামলা দায়েরকারী আইনজীবী। তার বক্তব্য। এতে যুব সমাজ জুয়ায় আসক্ত হয়ে পড়ছে। আদালতে করা অভিযোগে বলা হয়েছে যে, বিরাট কোহালি ও তামান্নার মতো তারকাদের ব্যবহার করে যুব সমাজের মগজধোলাই করা হচ্ছে। আর এই কারণেই দু’জনকে গ্রেফতার করা উচিত। আদালতে অনলাইন জুয়া খেলার সমস্ত অ্যাপে নিষেধাজ্ঞা জারির দাবিও জানিয়েছেন ওই আইনজীবী।

আরও পড়ুনঃঅবশেষে স্বস্তি সৌরভের পরিবারে, করোনা মুক্ত হলেন স্নেহাশিস গঙ্গোপাধ্যায়

আরও পড়ুনঃস্টোরে কাজের পাশাপাশি লুকিয়ে খেলতেন ক্রিকেট,আজ জাতীয় দলের নির্ভরযোগ্য ক্রিকেটার

ওই আিনজীবী তার আবেদনে এক তরুণের উদাহরণ দিয়ে বলেছেন, এই অনলাইন জুয়া খেলার জন্য এক তরুণ প্রচুর টাকা ধার নিয়েছিলেন। কিন্তু শেষমেশ তা শোধ করতে না পারায় আত্মঘাতী হন। এই অনলাইন জুয়াগিলির জন্য যুব সমাজ জুা আসক্ত হয়ে পড়ছে বলেও তার অভিযোগ। যার ফলে আত্মহত্যার প্রবণতাও ক্রমশ বাড়ছে। আর সমগ্র বিষয়টিতে বিরাট কোহলি, তামান্না ভাটিয়ার মত তারকার অনলাইন জুয়ার বিজ্ঞাপন করে তাতে উৎসাহ দিচ্ছে বলেও অভিযোগ ওই আঅনজীবীর। যদিও এই বিষয়ে এখনও কোনও মুখ খোলেননি বিরাট কোহলি। কিন্তু এই মামলার কারণে আগামী দিনের ভারত অধিনায়কের অস্বস্তি বাড়ে কিনা এখন সেটাই দেখার।