চাঁদের দক্ষিণ মেরুর অঞ্চলের জমি খুবই অসমান। খানা-খন্দে ভর্তি। যেই কারণে এই অংশে মহাকাশযান নামানো খুবই কঠিন। ভারত ছাড়া এখনও পর্যন্ত আর কোনও দেশই এখনও পর্যন্ত কোনও চেষ্টাই করেনি। আর সেখানেই নাকি খেলে পারেন তরুণ ভারতীয় উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান সঞ্জু স্যামসন। দক্ষিণ আফ্রিকা 'এ' দলের বিরুদ্ধে পঞ্চম একদিনের ম্যাচে তাঁর ব্যাটিং দেখে মুগ্ধ প্রাক্তন ওপেনার গৌতম গম্ভীর এইভাবেই প্রশংসা মাতলেন।

শুরুটা অবশ্য করেছিলেন আরেক প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার হরভজন সিং। দক্ষিণ আফ্রিকা 'এ' দলের বিরুদ্ধে শেষ একদিনের ম্যাচে ৪৮ বলে ৯১ রানের একটি ঝকঝকে ইনিংস খেলেন সঞ্জু। তাঁর দুরন্ত ইনিংসের দৌলতেই ভারত 'এ' সিরিজ জিতে নেয় ৪-১ ফলে। এরপরই তাঁকে ভারতের সিনিয়র দলের ৪ নম্বর জায়গায় খেলানোর আওওয়াজ তুলে দিয়েছেন হরভজন ও গৌতম গম্ভীর। ২০১৮ থেকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়েও এই জায়গার জন্য উপযুক্ত ব্যাটসম্যান খুঁজে পায়নি ভারত।  

আরও পড়ুন - ইসরোর পাশে গোটা দেশ, শুভেচ্ছা বার্তা বিরাট, শাস্ত্রী, শেহওয়াগদের

আরো পড়ুন - চন্দ্রযান ২-এর সাফল্য উদযাপনে ভাজ্জির ইসলাম বিদ্বেষ! বিভক্ত নেট-ভারত

আরো পড়ুন - ফের গম্ভীর বনাম আফ্রিদি, প্রসঙ্গ ভারত-পাক ম্যাচ! বিজেপি সাংসদের শিক্ষা নিয়ে প্রশ্ন

আরো পড়ুন - ফোকাসে তরুণ ব্রিগেড, সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা এ দলের লড়াই

হরভজন একটি টুইট করে সঞ্জুর টেকনিক ও বুদ্ধিমত্তার প্রশংসা করেন। তিনিই প্রথম ভারতের চার নম্বর জায়গায় সঞ্জুকে খেলানোর কথা তোলেন। এরপরই তাঁর কথায় সম্মতি জানিয়ে গম্ভীর পাল্টা টুইটে লেখেন, সঞ্জু চাইলে চাঁদের দক্ষিণ মেরু এলাকাতেও ব্যাট করতে পারবে। রসিকতা করে বিক্রম ল্যান্ডারে সঞ্জুকে হয়ে নিয়ে যাওয়ার জায়গা আছে কিনা তাও জানতে চান এই প্রাক্তন ওপেনার।

তবে সঞ্জু স্যামসন শুধু মাঠে নয়, মাঠের বাইরেও ঝড় তুলেছেন। দক্ষিণ আফ্রিকা 'এ' দলের সঙ্গে সিরিজ শেষে তিনি তাঁর পুরষ্কার অর্থের পুরোটাই দান করেছেন গ্রিনফিল্ড স্টেডিয়ামের মাঠকর্মীদের। সিরিজের প্রতি ম্যাচে বেতন হিসেবে দেওয়া হয়েছে ৭৫০০০ টাকা করে। সব মিলিয়ে মোট ১৫ লক্ষ টাকা সঞ্জু দান করেছেন মাঠকর্মীদের।