এখনও পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আম্পয়ার হিসেবে নিজের বিচক্ষণতার জন্য যে সকল আম্প্য়ার প্রশংসিত হয়েছেন তাদের মধ্যে মধ্যে স্টিভ বাকনর অন্যতম। বর্তমান যুগের এত প্রযুক্তির সাহায্য ছাড়াও অনেক কঠিন সিদ্ধান্ত নিজেদের বিচক্ষণতার জোরে সঠিকভাবে দিয়েছেন স্টিভ বাকনর। কিন্তু সচিন তেন্ডুলকর ব্য়াট করার সময় যদি আম্পায়ার বাকনর থাকত, তবে ভয়ে ভয়ে থাকতেন মাস্টার ব্লাস্টারের অনুগামীরা। কারণ অবশ্যই ভুল সিদ্ধান্ত। নিজের কেরিয়ারে বেশ কয়েক বার সচিনকে আউট দিয়েছেন স্টিভ বাকনর। কিন্তু পরে দেখা গিয়েছে সেগুলি আউট ছিল না। এরজন্য সচিন ভক্তরা আম্পায়ার হিসেবে বাকনরকে পছন্দও করতেন না। কিন্তু মানুষ মাত্রই ভুল হয়। আর মাঠে একঝলক দেখে কঠিন সিদ্ধান্ত দেওয়াও সত্যিই কঠিন।বর্তমানে দেখতে দেখতে প্রায় ১১ বছর হয়ে গিয়েছে স্টিভ বাকনরের অবসরের।অবসরের ১১ বছর পর বাকনর স্বীকার করলেন তার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আম্পায়ারিং করার সময় বেশ কয়েক বার সচিন তেন্ডুলকরকে ভুল আউট দিয়েছেন। এর জন্য দুঃখও প্রকাশ করেছেন স্টিভ বাকনর।

আরও পড়ুনঃ২০২৩ বিশ্বকাপ খেলার বিষয়ে আশাবাদী শ্রীসন্থ

আরও পড়ুনঃনেতা সৌরভের মধ্যে ক্লাইভ লয়েডকে দেখতে পেতেন শ্রীকান্ত

অবসরের পর ক্যারেবিয়ান আম্পায়ার বর্তমানে থাকেন নিউউয়র্কে। সম্প্রতি বার্বাডোজের একটি রেডিও চ্যাট শো-তে অংশ নিয়েছিলেন স্টিভ বাকনর।সেখানে সচিন প্রসঙ্গে আলোচনা উঠলে বাকনর বলেন,'আমার যতদূর মনে পড়ে শচীনকে দু'বার ভুল করে আউট দিয়েছিলাম। দেখুন যে কোনো মানুষই ভুল করে। আমরা তো যন্ত্র নই। কিছু কিছু সময় মাঠের সিদ্ধান্তে ভুল হয়ে যায়। অস্ট্রেলিয়ায় একবার শচীনকে এলবিডব্লিউ আউট দিয়েছিলাম। ওটা আমার ভুল সিদ্ধান্ত ছিল। বল উইকেটের উপর দিয়ে যাচ্ছিল। আমি পরে রিভিউ দেখে বুঝতে পেরেছিলাম। সেদিন সচিন আউট ছিল না। পরে অনুতাপ হয়েছে। দ্বিতীয়বার সচিনকে ভুল আউট দিয়েছিলাম ভারতের মাটিতে। ওকে সেবার কট বিহাইন্ড আউট দিয়েছিলাম। সচিনের ব্যাচের সঙ্গে বলের স্পর্শ হয়নি। ওই ম্যাচটা ছিল ইডেন গার্ডেন্সে। বিরাট বড় মাঠ। ওখানে খেলা হলে অনেক সময় আমরা কিছু শুনতে পেতাম না। সেদিনও তাই হয়েছিল। ওত মানুষের চিৎকারে সচিনের ব্যাটে বল লাগার শব্দ ভুল করেছিলাম। ওই ভুলের জন্য আমি নিজেও খুশি ছিলাম না।' এছাড়াও স্টিভ বাকনর জানিয়েছেন, বর্তমানে ক্রিকেটে এত প্রযুক্তির ব্যবহার বেড়েছে যার ফলে ভুল সিদ্ধান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কম। প্রযুক্তির ব্যবহারে ভলই হয়েছে। কিন্তু আমাদের সময় তা ছিল না। কিন্তু সচিনকে ভুল আউট দেওয়ার জন্য সত্যিই আমি দুঃখিত।

আরও পড়ুনঃক্রিকেটে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের আঁতুরঘর হয়ে উঠছে ভারত,দাবি আইসিসির