অগাস্টা মাসের ১৪ তারিখ ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে শেষ একদিনের ম্যাচ খেলেছিল ভারতীয় দল। তারপর থেকে একদিনের ক্রিকেটে আর মাঠেই নামা হয়নি কোহলিদের। গত কয়েক মাসে বিশ্ব ক্রিকেটে শুধু টেস্ট ও টি-২০ ম্যাচ নিয়েই যত আলোচনা। আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টি-২০ বিশ্বকাপ। তাই ক্রিকেটের সব থেকে ছোট ফরম্যাটের দিকে একটু বেশি ফোকাস করছে সবকটি দেশ। সঙ্গে চলছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের খেলা। টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে আইসিসি এই উদ্যোগটাও গুরুত্ব সহ দেখছে ভারত সহ বিভিন্ন দেশ। তাই বিশ্বকাপের পর থেকে একদিনের ক্রিকেট ম্যাচের সংখ্যাটাও যেন কমে গেছে। তাইতো তিন মাস পর আবার একদিনের ক্রিকেটে মাঠে নামতে চলেছে ভারতীয় দল। তাই নতুন করে একটু ফোটোশ্যুটও হয়ে গেল রোহিতদের নিয়ে। 

 

 

আরও পড়ুন - আবার চোট পেয়ে ছিটকে গেলেন ভুবনেশ্বর কুমার, একদিনের দলে শার্দুল ঠাকুর

ভারতীয় ক্রিকেটে এখন যাবতীয় চর্চা আগামী বছরের টি-২০ বিশ্বকাপ নিয়ে তাই রবিবার থেকে শুরু হতে চলা ভারত ওয়েস্ট ইন্ডিজ একদিনের সিরিজ নিয়ে উন্মাদনা কোথায় যেন একটু কম। তাই প্রথম ম্যাচের আগে সাংবাদিক সম্মেলনে বিরাট কোহলির বদলে এলেন দলের ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠোর। তবে একদিনের সিরিজ হোক বা টি-২০ ক্রিকেট, ভারতীয় শিবিরে একটা প্রশ্ন কমন। সেটা ঋষভ পন্থের ফর্ম। টি-২০ সিরিজে একটি হলেও উন্নতি হয়েছে তাঁর খেলায়। এবারও কঠিন পরীক্ষায় নামতে চলেছেন পন্ঠ। কারণ একদিনের ক্রিকেটে উইকেটে টিকে খেলার একটা সময় পাওয়া যায়, ঋষভ এবার কি করছেন সেটা দেখতে চাইছেন সবাই। তবে টিম ইন্ডিয়ার অন্দরে সবাই তরুণ উইকেট কিপারকে সাহস যুগিয়ে চলেছেন। ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠোর বলছেন, একটা ইনিংস ঋষভকে বদলে দেবে। ঋষভের ব্যাটে রান এলেই সবই বুঝতে পারেবন কেন এই ক্রিকেটারের ওপর দল ভরসা রাখছে। বলছেন বিক্রম। 

আরও পড়ুন - নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বিক্ষোভের জের, রঞ্জি ট্রফির ম্যাচ গুয়াহাটিতে খেলতে চায় না অসম

চোটের জন্য একদিনের সিরিজ থেকে আগেই ছিটকে গেছেন শিখর ধাওয়ান। তাঁর জায়গায় একদিনের দলে সুযোগ দেওয়া হয়েছে মায়াঙ্ক আগারওয়ালকে। আর এখানেই প্রশ্ন, রবিবারের ম্যাচে চেন্নাইতে রোহিতের সঙ্গে ওপেন করতে কে নামবেন, রাহুল না মায়াঙ্ক? বিশ্বকাপে শিখর চোট পেয়ে ছিটকে যাওয়ার পর রোহিতকে সঙ্গ দিয়েছিলেন রাহুল। তাঁর ব্যাটেও রান ছিল। পাশাপাশি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধেই সদ্য শেষ হওয়া টি-২০ সিরিজে দুরন্ত ব্যাটিং করেছে কর্নাটকের এই ক্রিকেটার। ওপেনার হিসেবে ছন্দে রয়েছেন তিনি। এদিকে টেস্ট ওপেনার হিসেব দারুণ শুরু করেছেন মায়াঙ্ক। তিনিও জায়গা দাবি করেন। তাই একদিনের সিরিজের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামার আগে রোহিতার সঙ্গে কাকে ওপেনার হিসেবে পাঠানো হবে সেটা নিয়ে ভাবতে হবে কোহলি-শাস্ত্রীকে। 

আরও পড়ুন - সুপ্রিম রায়ের অপেক্ষায় বোর্ড, আরও একমাস দায়িত্বে থাকছেন এমএসকে প্রসাদ