করোনা আবহে ক্রিকেটের জন্য নয়া এসওপি জারি করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। একাধিক নয়া নিয়ম বলা হয়েছে এই এসওপিতে। স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং পদ্ধতি অনুসারে নিজ নিজ কেন্দ্রে প্রশিক্ষণ পুনরায় শুরু করার আগে একটি সম্মতি ফর্মে স্বাক্ষর করতে হবে ক্রিকেটারদের৷ এসওপি-তে জানানো হয়েছে ৬০ বছরের বেশি বয়সি এবং অন্তর্নিহিত চিকিত্সা শর্তযুক্ত ব্যক্তিদের শিবিরের অংশ নিতে নিষেধ করা হয়েছে। এছাড়াও করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য একটি টাস্ক ফোর্স গঠন করেছে বিসিসিআই। এই টাস্ক ফোরসের অন্যতম সদস্য হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়কে।

আরও পড়ুনঃজীবনের সেরা উপহার দেওয়ায় নতাসাকে ভালবাসায় ভরিয়ে দিলেন হার্দিক পান্ডিয়া

বর্তমানে জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির ডিরেক্টর পদে নিযুক্ত রয়েছেন রাহুল দ্রাবিড়। এর পাশাপাশি করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইতে টাস্ক ফোর্সে রাখা হয়েছে ভারতী ক্রিকেটের দ্য ওয়ালক। বেঙ্গালুরুর এনসিএ-তে প্রশিক্ষণ পুনরায় শুরু করার জন্য, সিওভিডি টাস্ক ফোর্সে দ্রাবিড, একজন মেডিকেল অফিসার, একজন হাইজিন অফিসার এবং বিসিসিআই-এর এজিএম, ক্রিকেট অপারেশনসকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। তাঁদের দায়িত্বের মধ্যে রয়েছে “খেলোয়াড়দের সঙ্গে স্পষ্ট ও নিয়মিত যোগাযোগ রাখা৷ ঝুঁকি পরিচালনার জন্য কী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে, তা ব্যাখ্যা করা৷ 

আরও পড়ুনঃকরোনা আবহে অন্যভাবেই রাখিবন্ধন পালন করলেন সচিন,যুবরাজরা, দিলেন আবেগঘন বার্তা

আরও পড়ুনঃএবার থেকে সাবধান,ফুটবল মাঠে কাশলেই রেড কার্ড

বিভিন্ন রাজ্যেরল খেলোয়ারদের মতই এনসিএর খেলোয়ারদেরও সমস্ত নিয়ম মেনে চলতে হবে। প্রশিক্ষণ পুনরায় শুরু করার আগে একটি সম্মতি ফর্মে স্বাক্ষর করতে হবে। প্লেয়ারদের স্বাস্থ্য নিয়ে যেহেতু কোনওরকম ঝুঁকি নিতে রাজি নয়, তাই বোর্ডের কোভিড ১৯ টাস্ক ফোর্সে দ্রাবিড়ের মত একজন লোকের খুবই দরকার বলে মনে করছেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের আধিকারিকরা। প্লেয়ারদের সুরক্ষার জন্য নিজের দায়িত্ব যতটা সম্ভব পালন করার আশ্বাসও দিয়েছেন রাহুল দ্রাবিড়।