সাম্প্রতিক কালে তার একাধিক মন্তব্যের জেরে সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছেন পাকিস্তানের প্রাক্তন লেগ স্পিনার দানিশ কানেরিয়া। কখনও তিনি  বলেছেন, হিন্দু হওয়ার কারণেই দলের অনেকেই বাজে ব্যবহার করত তার সঙ্গে, দলে সঠিক সুযোগও পেতেন না তিনি। আবার কখনও তিনি অভিযোগ করেছেন, শহিদ আফ্রিদি তাকে দলে নিতে পছন্দ করতেন না বলে তার ওডিআই কেরিয়ার দীর্ঘায়িত হয়নি। এবার ফের পিসিবির বিরুদ্ধে সুর চড়ালেন কানেরিয়া। অবশ্য এবার তার সঙ্গ জড়িয়ে রয়েছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নামও। প্রাক্তন পাক লেগ স্পিনারের মতে,সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় চাইলে আইসিসির চেয়ারম্যান হওয়ার জন্য পিসিবির সমর্থনের দরকার পড়বে না।

আরও পড়ুনঃ'কালু' শব্দের মানে জেনে ক্ষোভে ফুঁসছেন ড্যারেন সামি

শশাঙ্ক মনোহরের মেয়াদ শেষের পর কে আইসিসির চেয়ারম্যান হবে তা নিয়ে চলছে জল্পনা কল্পনা। সৌরভের  সম্ভাবনার কথা প্রথম উত্থাপন করেছিলেন প্রাক্তন ইংল্যান্ড অধিনায়ক ডেভিড গাওয়ার। পরে প্রাক্তন দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক গ্রেম স্মিথ হাওয়াটা জোরালো করেন। স্মিথকে সমর্থন করে প্রোটিয়া বোর্ডের সিইও জানিয়ে দেন, শশাঙ্ক মনোহরের পর সৌরভ পরবর্তী আইসিসি চেয়ারম্যান হলে, তাঁদের আপত্তি নেই এবং বর্তমান বিসিসিআই সভাপতিকে আইসিসিতে সমর্থন করবেন তাঁরা। এবার সৌরভের আইসিসি চেয়ারম্যান হওয়ার দাবি জানালেন দানিশ কানেরিয়াও। তিনি জানান, সৌরভ আইসিসি চেয়ারম্যানের পদে সবথেকে উপযুক্ত ব্যক্তি। তিনি এও দাবি করেন, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড সৌরভকে সমর্থন না করলেও টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক চাইলে তাঁর আইসিসি প্রধান হওয়া আটকাবে না। 

আরও পড়ুনঃহঠাৎ কেন নিজেকে 'জম্বি' ভাবছেন দীনেশ কার্তিক,জানালেন নিজেই

আরও পড়ুনঃআইপিএল আয়োজনের জন্য বিসিসিআইকে প্রস্তাব দিল আমরশাহি

ব্রিটিশ কাউন্টি ক্রিকেটে স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে আজীবন নির্বাসিত হওয়া কানেরিয়া বলেন, ‘সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় একজন অসাধারণ ক্রিকেটার ছিল। বিষয়ের সংবেদনশীলতা ও বোঝে। আইসিসি চেয়ারম্যান পদে সৌরভের থেকে উপযুক্ত প্রার্থী আর হতে পারে না।’ কানেরিয়া আরও বলেন, ‘সৌরভ সাফল্যের সঙ্গে দেশকে নেতৃত্ব দিয়েছে। ও আইসিসিকে নেতৃত্ব দিলে ক্রিকেট সামনের দিকে এগিয়ে যাবে নিশ্চিত। শেষে কানেরিয়া জানান,'সৌরভ আইসিসি প্রধান হলে তিনি আবার আজীবন নির্বাসনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থায় আবেদন করবেন। তাঁর বিশ্বাস, সৌরভ নিশ্চিত বিষয়টি যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করবেন এবং আইসিসি আমাকে যথাসাধ্য সাহাষ্য করবে।' কিন্তু আইসিসির চেয়ারম্যান নির্বাচনের ক্ষেত্রেও যেভাবে কানেরিয়া পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে অপমান করেছেন, সূত্রের খবর তাতে বেজায় চটেছেন পিসিবি কর্তারা। এই বিতর্কের জল এবার কত দূর গড়ায় সেদিকেই নজর ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের।