আইপিএল খেলতে আমিরশাহি পৌছে গিয়েছে সবকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি দলই। বর্তমানে হোটেলে আইসোলেশনে রয়েছেন সকল প্লেয়াররা। তিনবার করোনা পরক্ষীর পরই শুরু হবে অনুশীলন। তখন থেকেই জৈব নিরাপত্তা বাবলের মধ্যে প্রবেশ করতে হবে সকলকে। একইসঙ্গে মানতে হবে কঠোর নিয়ম। তাই অনুশাীলন শুরুর আগে প্লেয়ার, কোচিং স্টাফ ও সাপোর্টিং স্টাফদের নিয়ে ভার্চুয়াল মিটিং সারলেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্য়াঙ্গালোরের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। মিটিংয়ে সকলকে নিয়ম মেনে চলার জন্য কড়া বার্তা দিলেন আরসিবি অধিনায়ক।

আরও পড়ুনঃবার্সা ছাড়ার ইচ্ছে প্রকাশ হতাশ মেসির, ক্লাব অফিসে গ্রেনেড ছুড়লেন ভক্তরা

হোটেলের রুম থেকেই সকলকে ভিডিও কলে ধরেন বিরাট। সেখানে ভারতীয় ক্রিকেটারদের পাশাপাশি ছিলেন এবি ডিভিলিয়ার্স, ক্রিস মরিসের মতো আন্তর্জাতিক তারকারা। ছিলেন সাইমন কাটিচ, মাইক হেসনের মতো কোচিং স্টাফরা।  সকলের সঙ্গে প্রথমে প্রাথমিক আলাপ করেন বিরাট করেন বিরাট ককোহলি। তারপরই কার্যত সতর্কবার্তা দিলেন দলের সঙ্গে যুক্ত সকলের উদ্দেশ্যে। একপ্রকার ধমকও বলা চলে। তা অবশ্য সকলের ভালোর জন্য। বিরাট বলেন,'করোনা সংক্রমণ রোধে বিসিসিআইয়ের যে নির্দেশিকা হাতে পেয়েছেন সকলে, তা যেন অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলা হয়। একটা বিষয়ে আমাদের সকলকে একমত হওয়া দরকার। বায়ো বাবল বজায় রাখা এবং নিরাপত্তা নিয়ে কোনও আপোষ না করা। কারণ, আমাদের কারও একটা ভুলই কার্যত গোটা টুর্নামেন্ট ভেস্তে দিতে পারে। আমরা কেউই সেটা চাই না। । কেউ কোনওভাবে জৈব-নিরাপত্তার বেষ্টনী ভাঙলে সে গোটা দলকে হতাশ করবে। তার জন্য আরসিবির মাথা নীচু হতে পারে।'

 

 

আরও পড়ুনঃ'খেলা ও আর্থিক দুরাবস্থা,নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে মেসিকে বলির পাঁঠা করছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ'

আইপিএল ২০২০ যে অন্যান্য সব আইপিএলের থেকে আলাদা তা প্রথম থেকেই বলে আসছেন সকলে। মাঠের যুদ্ধের পাশাপাশি মাঠের বাইরে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত যুদ্ধ চালাতে হবে সকল প্লেয়ারদের। সংক্রমণ থেকে বাঁচতে মানতে হবে একাধিক কটোর নিয়ম। বিরাট কোহলি যে তার দলের নিরাপত্তা নিয়ে কোনও রকম আপোশ করতে চাননা এদিনের ভার্চুয়াল মিটিংয়ের মাধ্যমেই তা পরিস্কার করে দিয়েছেন। তাই প্রথমেই কড়া ভাষায় সকলকে সতর্কও করে দিলেন বিরাট। একইসঙ্গে বুঝিয়ে দিলেন মাঠ ও মাঠের বাইরেও এবার দলের নিয়ন্ত্রণ নিজের হাতেই রাখবেন কিং কোহলি।

আরও পড়ুনঃদীর্ঘ দু-দশকে লিও গড়েছেন অসংখ্য রেকর্ড, মেসি-বার্সা সম্পর্ক ইতির আবহে জেনি নিন সেই পরিসংখ্যান