সচিন তেন্ডুলকর ও সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। শুধু ভারত নয়, বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম সফল ওপেনিং জুটি। অনেক ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ তো সরাসরি বলেন, সর্বসাকালেক সেরা ওপেনিং জুটি। দুই কিংবদন্তীর পরিসংখ্যানও তো সেই কথায় বলে। সচিন-সৌরভের ওপেনিং জুটি ভারতের হয়ে ৭৬টি ম্যাচ খেলে তুলেছেন ৮,২২৭ রান। গড় ৪৭.৫৫। যা বিশ্বের অন্য কোনও ওপেনিং জুটির নেই। কেরিয়ারে ২৬ বার এই জুটি একশো রানের পার্টনারশিপ করেছেন। ২৯ বার জুটিতে পঞ্চাশ বা তার বেশি রান যোগ করেছেন। ২০০১ সালে কেনিয়ার বিরুদ্ধে ওয়ানডে-তে সর্বোচ্চ ২৫৮ রান করেন সচিন-সৌরভ জুটি। এই তথ্য আমাদের সকলেরই জানা। কিন্তু কেনও কেরিয়ারে বেশির ভাগ সময় ওপেন করতে গিয়ে প্রথম বল ফেস করতেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়? সেই রহস্যই এবার ফাঁস করলেন বর্তমান বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট।

আরও পড়ুনঃবর্তমান দল থেকে কাকে ২০০৩ বিশ্বকাপ দলে নিতেন,মায়াঙ্কের প্রশ্নের উত্তরে সৌরভ বললেন

মায়াঙ্ক আগরওয়ালের সঙ্গে বিসিসিআই টিভিটে লাইভ চ্যাটে যোগ দিয়েছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। সেখানেই, সৌরভকে মায়াঙ্ক প্রশ্ন করেন, সচিন কেনও প্রথম বল খেলতে চাইতেন না? মায়াঙ্কের প্রশ্নের উত্তরে সৌরভ হেসে বলেন,'আমি সচিনকে কয়েকবার বলেছিলাম যে তুমি তো কখনও কখনও প্রথম বল কেলতে পার। কিন্তু সচিনের দুটো উত্তর তৈরি থাকত। সচিন মনে করত ওর ফর্ম যখন ভাল থাকত, তখন তা এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই দলের স্বার্থে দরকার। তাই সেই কারণেই তাকে নন স্ট্রাইক এন্ডে থাকা উচিৎ।  আর সচিনের ফর্ম যখন ভাল থাকত না। তখন সচিন মনে করত নন স্ট্রাইকে এন্ডে দাঁড়ালে ওর উপর চাপ কম পড়বে। ফেল ওর ইনিংস এগিয়ে নিয়ে যেতে সুবিধা হবে।' এছাড়া মজার ছলে সৌরভ জানান,' কয়েকবার তো আমি কিছু না বলে নন স্ট্রাইকিং এন্ডে গিয়ে দাঁড়িয়ে পড়েছি। তখন ও বাধ্য হয়েছে ওপেনিং বল খেলতে। তবে তা কয়েক বারই হয়েছে।'

 

 

আরও পড়ুনঃ'এত হারিয়েছি যে ভারতীয় ক্রিকেটাররা একসময় দয়া ভিক্ষা চাইত',সুস্থ হয়েই ভারতের বিরুদ্ধে তোপ দাগা শুরু আফ্রিদির

আরও পড়ুনঃফের সিএবিতে করোনা ভাইরাসের থাবা,সাত দিনের জন্য বন্ধ ইডেন গার্ডেন্স

শুধু মাঠেই নয়, মাঠের বাইরে অভিন্ন হৃদয় বন্ধুত্ব ভারতীয় তথা বিশ্ব ক্রিকেটের দুই কিংবদন্তীর। করোনা ভাইরাসের জেরে লকডাউন পর্বে তা আমরা একাধিক বার টের পেয়েছি। দুজনেই একসঙ্গে কাটানো একাধিক মুহুর্তের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন। নস্টালজিক হয়েছেন সচিন-সৌরভ জুটি। মায়াঙ্কের সঙ্গে আড্ডা দিতে গিয়ে সেই প্রসঙ্গ উঠেছে সৌরভের কথায়।