মঙ্গলবার একটি ইনস্টাগ্রাম সেশনে এসে ভারতীয় ক্রিকেটের নানান আঙ্গিক নিয়ে মুখ খুললেন প্রাক্তন ভারতীয় অল-রাউন্ডার যুবরাজ সিং। নানা বিষয় নিয়ে অকপট আলোচনায় উঠে আনলেন নিজের নানারকম চিন্তাভাবনা। তিনি জোরদার প্রশ্ন তুলেছেন ভারতীয় ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠোরের যোগ্যতা নিয়ে। তার মতে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ভারতীয় দল কে কোচিং করানোর যোগ্যতা রাঠোরের আছে কিনা তা নিয়ে একটা বড়সড় প্রশ্নচিহ্ন থেকেই যায়। জাতীয় দলের হয়ে রাঠোর ৬ টি টেস্ট এবং সাতটি ওয়ান-ডে ম্যাচ খেলেছেন। প্রসঙ্গত রাঠোরের আগে ভারতীয় দলের কোচ ছিলেন সঞ্জয় বাঙ্গার। 

আরও পড়ুনঃইষ্টবেঙ্গলের পাশে মুখ্যমন্ত্রী,আইএসএল খেলা নিয়ে এআইএফএফ প্রেসিডেন্টকে ফোন মমতার

বিভিন্ন মানসিকতার খেলোয়াড়দের কে বিভিন্ন ভাবে সামলাতে হয় বলে মনে করেন যুবরাজ। তিনি যদি কোচ হতেন তাহলে বুমরা কে ৯ টার মধ্যে ঘুমিয়ে পড়তে বলতেন কিন্তু হার্দিক পান্ডিয়াকে রাত্রি ১০ টার সময়ও তার সাথে বাইরে পানাহার করতে যেতে ডাকতে দ্বিধা করতেন না বলে জানিয়েছেন যুবরাজ। এভাবেই ভিন্ন ভিন্ন মানসিকতার খেলোয়াড়দের সাথে তাদের মতো করে মিশতে হয় বলে জানিয়েছেন যুবরাজ। এর সাথে সাথে কোচ হিসাবে রবি শাস্ত্রী কোচ হিসেবে নিজের দায়িত্ব ঠিকঠাক মতো পালন করছেন কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন যুবি। তিনি এটাও জানিয়েছেন বর্তমানে ভারতীয় দলের ক্রিকেটাররা প্রয়োজনে পরামর্শ নেওয়ার মতো কাউকে পান না।

আরও পড়ুনঃপাকিস্তানে হিন্দু মন্দিরে গিয়ে ত্রাণ বিলি, মানবতার পুজারি আফ্রিদি

আইপিএলে বিভিন্ন দলের হয়ে খেলা নিয়েও মুখ খুলেছেন যুবি। জানিয়েছেন নিজের রাজ্য পাঞ্জাবের হয়ে খেলা কোনদিনই উপভোগ করতে পারেননি তিনি। অধিনায়ক হিসাবে তিনি যা চেয়েছিলেন পাঞ্জাব ম্যানেজমেন্ট তাকে তা দিতে পারেনি। ফলে তিনি নিজেই একসময় পাঞ্জাব ছাড়তে চেয়েছিলেন। তবে তার মানে এই নয় তিনি পাঞ্জাব কে ভালোবাসেন না, তার সমস্যা পাঞ্জাবের আইপিএল দলের ফ্রাঞ্চাইজি যারা চালাচ্ছেন তাদের নিয়ে। 

আরও পড়ুনঃলাইভ শো-তে চাহলকে ট্রোলড করলেন বিরাট কোহলি, ভাইরাল ভিডিও

শেষ বছর হওয়া বিশ্বকাপের দলগঠন নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। তার মতে দলের মিডল অর্ডারে অভিজ্ঞতার অভাব ছিল। তার সাথে ২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনাল হারের দায়ও নিজের ঘাড়ে নিয়েছেন তিনি। শ্রীলঙ্কা বোলারদের পূর্ন কৃতিত্ব দিয়ে বলেছেন যে সেদিন তিনি অনেক চেষ্টা করেও বল ঠিকঠাক হিট করতে পারেননি। তার সাথে আরও কিছু ব্যাটসম্যানও সেদিন ব্যর্থ হয়েছিল, কিন্তু হারের পুরো দায় তার ওপরই বর্তেছিল। তাকেই ভিলেন বানানো হয়েছিল। ওই ঘটনার ফলে খুবই হতাশ হয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন যুবরাজ।