লা-লিগায় নিজেদের শেষ ম্যাচে ওসাসুনা-র কাছে লজ্জার পরাজয় উপহার পেয়েছে মেসিরা। চলতি লিগ মরশুম একেবারেই ভালো যায়নি তাদের। শেষ ম্যাচে ১৫ মিনিটে গোল করে এগিয়ে যায় ওসাসুনা। অনেক চেষ্টা করেও প্রথমার্ধে গোলমুখ খুলতে পারেনি বার্সা। একবার মেসির ফ্রি-কিক পোস্টে লেগে ফেরে। দ্বিতীয়ার্ধের ৬৫ মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে গোল করে সমতা ফেরান মেসি। ম্যাচের ৭৭ মিনিটে লাল কার্ড দেখেন ওসাসুনা-র এনরিক গালেগো। আরও চাপ বাড়ায় বার্সা। কিন্তু লাভ হয়নি। বরং অতিরিক্ত সময়ে কাউন্টার অ্যাটাকে গোল করে তিন পয়েন্ট নিয়ে বেরিয়ে যায় ওসাসুনা। শেষ ম্যাচের ফল এইবার লা-লিগায় বার্সার পারফরম্যান্সেরই প্রতিফলন বলে মনে করছেন অনেকে। 

আরও পড়ুনঃ'মানুষ গম্ভীরকে একেবারেই পছন্দ নয়,ওর মধ্যে কিছু সমস্যা আছে', ফের তোপ শাহিদ আফ্রিদির

লিগ এখন অতীত। এইবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজেদের পরবর্তী ম্যাচের উপর মনোনিবেশ করতে চায় বার্সেলোনা। তার আগে আজ লিগে নিজেদের শেষ ম্যাচ খেলতে নামছে মেসিরা। অ্যাওয়ে ম্যাচে তারা মুখোমুখি হবে দিপর্তিভ অ্যালাভেসের। চলতি লা-লিগায় একটুর জন্য অবনমনের হাত থেকে বেঁচেছে অ্যালাভেস। চলতি লিগে তারা এখন ১৫ নম্বরে রয়েছে। 

আরও পড়ুনঃসোমে বৈঠক আইসিসির,বিশ্বকাপ বাতিল ঘোষণার অপেক্ষায় বিসিসিআই

আরও পড়ুনঃ২০০৮ সিডনি টেস্টে তার দুটি ভুল সিদ্ধান্তের কারণেই হারতে হয়েছিল ভারতকে, স্বীকারোক্তি স্টিভ বাকনারের

দলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স দেখে হতাশ মেসি নিজেও। এখনও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টিকে রয়েছে বার্সেলোনা। কিন্তু হতাশ মেসি জানিয়েছেন এই পারফরম্যান্সের দৌলতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ধারেকাছেও পৌঁছনো যাবে না। অনেকে মেসির এই বক্তব্যের সমালোচনা করে বলছেন দলের খারাপ অবস্থায় একজন অধিনায়কই যদি এত নেতিবাচক মানসিকতা সম্পন্ন হয়ে পড়েন তবে দলের বাকি খেলোয়াড়দের ওপর তা খুব খারাপ প্রভাব ফেলবে। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে মেসির বক্তব্যকে ভুল বলতে পারবেননা কেউই। লা-লিগা শেষ হলে সামনেই রয়েছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচ। সেখানে নাপোলির বিরুদ্ধে শেষ-ষোলোর দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচ খেলবে বার্সেলোনা। জিতলে তারপর খেলতে হবে বায়ার্ন মিউনিখের বিরুদ্ধে। মেসি-ম্যাজিকের প্রত্যাশায় এখন থেকেই বুক বাঁধছেন বার্সেলোনা ভক্তরা।