মেসি চোটের জন্য মাঠে নামতে পারেননি। সাইড লাইনে বসেই এখনও তাকে খেলা দেখতে হচ্ছে। আরনশনিবার রাতে ক্যাম্প নৌতে মেসির সামনেই এক তরুণ নায়কের মর্যাদা পেলেন। তিনি আনুসু ফাতি। মাত্র ১৬ বছর বয়েস, আর এখনই তিনি যা ঝলক দেখাতে শুরু করেছে সেটা তাক লাগিয়ে দিচ্ছে ফুটবল বিশ্বকে। তেমনই ঝলক দেখা গেল শনিবার রাতেও। ঘরের মাঠে বার্সেলোনা ৫-২ গোলে হারিয়ে দিল ভ্যালেন্সিয়াকে। গোল করলেন ও করালেন ফাতি। 

আরও পড়ুন - নেইমারের গোলেই জয় পিএসজির, প্রিমিয়ার লিগে জয় চেলসি, ম্যানইউ ও টটেনহ্যামের

খেলা শুরুর দুমিনিটের মধ্যেই প্রথম গোল তুলে নেয় বার্সেলোনা। গোলটি করেন ফাতি।   পাঁচ মিনিটের মধ্যে আবার গোল। এবার গোল করলেন বার্সেলোনার জার্সিতে নবাগত ডে জং। তাঁকে গোলের বস সাজিয়ে দিলেন ফাতি। ১০ মিনিটের মধ্যেই যেন প্রতিপক্ষকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দিল ভারভেরদের দল। ২৭ মিনিটে একটি গোল শোধ করে ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করেছিল ভ্যালেন্সিয়া। কিন্তু তাতে লাভ কিছুই হয়নি। দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে ফিরে প্রতিপক্ষের ওপর যেন বুলডোজার চালিয়ে দেন সুয়ারেজরা। ৫১ মিনিটে দলের তৃতীয় গোল করেন জেরার্ড পিকে। এরপর ৬১ মিনিট ও ৮২ মিনিটে পরপর দুটি গোল উরুগুয়ের স্ট্রাইকার লুই সুয়ারেজের। ইজুরি টাইমে ভ্যালেন্সিয়ার ম্যাক্সি গোমেজ একটি গোল শোধ করলেও দলে হার কোনও ভাবেই আটকেতা পারেননি। লাল লিগার চতুর্থ ম্যাচে জয় দিয়ে লিগ টেবিলে নিজের অবস্থান অনেকটাই গুছিয়ে নিতে পেরেছে গত মরসুমের চ্যাম্পিয়নরা। ৪ ম্যাচে এখন সুয়ারেজদের পয়েন্ট সাত। 

আরও পড়ুন - মানের জোড়া গোলে পিছিয়ে থেকে জয় লিভারপুলের, বেঞ্জেমার জোড়া গোলে জয় রিয়ালের

লা লিগায় বার্সেলোনা দুরন্ত জয় পেলেও প্রিমিয়ার লিগে গতবারের চ্যাম্পিয়ন ম্যাঞ্চেস্টার সিটি মুখ থুবড়ে পড়ল। নরউইচের ঘরের মাঠে গিয়ে হারের মুখে দেখতে হল গুয়ার্দিওলার দলকে। ম্যাচের প্রথমার্ধেই জোড়া গোলে এগিয়ে যায় নরউইচ। ১৮ মিনিট ও ২৮ মিনিটে গোল করে তারা। প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে প্রথম গোল শোধ করে সিটি। গোল করেন আর্জেন্তাইন তারকা অ্যাগুয়েরো। কিন্তু এই গোলটাও ম্যাচে ফেরাতে পারল না সিটিকে। উল্টে দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে ফিরেই আরও একটি গোল চাপিয়ে দেয় সিটি। ৮৮ মিনিটে গুয়ার্দিওলার দলের রুডরি আরও একটি গোল শোধ করে ম্যাচের ফল ৩-২ করলেন। একাধিক আক্রমণ করেও নরউইচের ডিফেন্স ভাঙ্গতে পারেননি স্টারলিংরা। তাই কিছুটা হলেও অবাক হারের মুখেই পরতে হল তাদের। সিটি হারায় এবারের ইপিএল খেতাবের দৌড়ে কিছুটা হলেও অ্যাডভান্টেজ পেয়ে গেল লিভারপুল। কারণ ৫ ম্যাচে তাদের যেখানে ১৫ পয়েন্ট, সেখানে ৫ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট আটকে গেল ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। 

আরও পড়ুন - জমে উঠেছে লিগের লড়াই, ড্র পিয়ারলেসের, জয় পেল মহমেডান, রবিবার টিকে থাকার লড়াই বাগানের