৫ লাখের বাজেট পেয়ে যেতে পারেন সুন্দর সব গাড়ি, দেখে নিন কারা রয়েছে তালিকায়

First Published 4, Mar 2020, 12:56 PM

পাঁচ লাখ টাকার নীচে গাড়িগুলোর মধ্যে ভারতে যে গাড়িগুলো সবচেয়ে জনপ্রিয় সেগুলি হল- রেনল্ট কিুউইড( দাম ৩.০২ লাখ টাকা), মারুতি অল্টো(২.৯৯লাখ টাকা) এবং মারুতি এস-প্রেসো (৩.৬৯ লাখ টাকা)। এছাড়াও অন্য যে গাড়িগুলির দাম ৫ লাখ টাকার মধ্যে এবং ভারতের মধ্যবিত্ত শ্রেণির কাছে যে গাড়িগুলোর জনপ্রিয়তা চিরকালীন তাদের দাম ও বৈশিষ্ট্যসমূহ আলোচিত হল

রেনল্ট কিুউইড- আনুষ্ঠানিকভাবে রেনল্ট লঞ্চ করেছে বিএস নিয়মসিদ্ধ কিউইড যার দাম ২.৯২ লাখ টাকা থেকে ৫.০১ লাখ টাকার মধ্যে। ০.৮ এবং ১.০ লিটার ইঞ্জিন আপডেট করা হয়েছে। টর্ক ফিগার একই রকম হয়েছে, যথা- ০.৮ লিটারের জন্য ৫৪পিএস, ৭৬ এনএম এবং ৬৮ পিএস এবং ৯১ এনএম ১.০ লিটার ইঞ্জিনের জন্য।  এই গাড়িতে ৫ স্পিড গিয়ার বক্স আছে। ফুয়েল ধারণের ক্ষমতা ২৮ লিটার। এই গাড়ির মাইলেজ ২৩ -২৫ কেএমপিএল।

রেনল্ট কিুউইড- আনুষ্ঠানিকভাবে রেনল্ট লঞ্চ করেছে বিএস নিয়মসিদ্ধ কিউইড যার দাম ২.৯২ লাখ টাকা থেকে ৫.০১ লাখ টাকার মধ্যে। ০.৮ এবং ১.০ লিটার ইঞ্জিন আপডেট করা হয়েছে। টর্ক ফিগার একই রকম হয়েছে, যথা- ০.৮ লিটারের জন্য ৫৪পিএস, ৭৬ এনএম এবং ৬৮ পিএস এবং ৯১ এনএম ১.০ লিটার ইঞ্জিনের জন্য। এই গাড়িতে ৫ স্পিড গিয়ার বক্স আছে। ফুয়েল ধারণের ক্ষমতা ২৮ লিটার। এই গাড়ির মাইলেজ ২৩ -২৫ কেএমপিএল।

রেনল্ট ট্রাইবার-- রেনল্ট ট্রাইবার এখন বিএস ৬ নিয়মসিদ্ধ ইঞ্জিন নিয়ে সমৃদ্ধ। এই গাড়ির ৬.৭৮ লাখ -৪.৯৯ লাখ টাকার মধ্যে দাম। ১.০ লিটার ইঞ্জিন উৎপন্ন করে ৭২পিএস পাওয়ার আর ৯৬ এনএম টর্ক আগের মতোই। রেনল্টের ফুয়েল এফিসিয়েন্সি এখন ১৯কেএমপিএল। ফুয়েল ক্যাপাসিটি ৪০ লিটার। মাইলেজ- ২০ কেএমপিএল। এই গাড়িতে রয়েছে ৫ স্পিডের গিয়ার বক্স।

রেনল্ট ট্রাইবার-- রেনল্ট ট্রাইবার এখন বিএস ৬ নিয়মসিদ্ধ ইঞ্জিন নিয়ে সমৃদ্ধ। এই গাড়ির ৬.৭৮ লাখ -৪.৯৯ লাখ টাকার মধ্যে দাম। ১.০ লিটার ইঞ্জিন উৎপন্ন করে ৭২পিএস পাওয়ার আর ৯৬ এনএম টর্ক আগের মতোই। রেনল্টের ফুয়েল এফিসিয়েন্সি এখন ১৯কেএমপিএল। ফুয়েল ক্যাপাসিটি ৪০ লিটার। মাইলেজ- ২০ কেএমপিএল। এই গাড়িতে রয়েছে ৫ স্পিডের গিয়ার বক্স।

মারুতি অল্টো -- মারুতি অল্টো এখন বিএস৬ সিএনজি বিকল্পে ভারতীয় বাজারে বিরাজমান। নতুন এলএক্সআই  এবং এলএক্সআই (ও) এস -সিওএনজি বিকল্পদুটির দাম যথাক্রমে- ৪.৩৩ লাখ টাকা ও ৪.৪৬ লাখ টাকা।  এই গাড়ির ৭৯৬ সিসি ৩ সিলিন্ডার ইঞ্জিন থেকে উৎপন্ন করবে ৪৭ পিওএস/৬৯ এনএম টর্ক। ২২-৩১ কেএমপিএল মাইলেজ উৎপন্ন করবে। ফুয়েল ক্যাপাসিটি ৬০ লিটার।  ৫ স্পিড গিয়ার বক্স। টর্ক- ৬০ এনএম।

মারুতি অল্টো -- মারুতি অল্টো এখন বিএস৬ সিএনজি বিকল্পে ভারতীয় বাজারে বিরাজমান। নতুন এলএক্সআই এবং এলএক্সআই (ও) এস -সিওএনজি বিকল্পদুটির দাম যথাক্রমে- ৪.৩৩ লাখ টাকা ও ৪.৪৬ লাখ টাকা। এই গাড়ির ৭৯৬ সিসি ৩ সিলিন্ডার ইঞ্জিন থেকে উৎপন্ন করবে ৪৭ পিওএস/৬৯ এনএম টর্ক। ২২-৩১ কেএমপিএল মাইলেজ উৎপন্ন করবে। ফুয়েল ক্যাপাসিটি ৬০ লিটার। ৫ স্পিড গিয়ার বক্স। টর্ক- ৬০ এনএম।

মারুতি এস-প্রেসো--মারুতি সুজুকি দাম বাড়িয়েছে প্রায় ৪.৭ শতাংশ এস-প্রেসো গাড়ির সব ধরণের বিকল্পের। এই গাড়ির মাইলেজ ২১ কেএমপিএল। ম্যানুয়াল ও আটোমেটিক দুই ধরণের ট্রান্সমিশন আছে। ফুয়েল ধারণ জরে ২৭ লিটার। এজিএস গিয়ার বক্স রয়েছে। টর্ক-৯০এনএম ও পাওয়ার-৬৭ বিএইচপি।

মারুতি এস-প্রেসো--মারুতি সুজুকি দাম বাড়িয়েছে প্রায় ৪.৭ শতাংশ এস-প্রেসো গাড়ির সব ধরণের বিকল্পের। এই গাড়ির মাইলেজ ২১ কেএমপিএল। ম্যানুয়াল ও আটোমেটিক দুই ধরণের ট্রান্সমিশন আছে। ফুয়েল ধারণ জরে ২৭ লিটার। এজিএস গিয়ার বক্স রয়েছে। টর্ক-৯০এনএম ও পাওয়ার-৬৭ বিএইচপি।

মারুতি ইগনিস--মারুতি ইগনিস গাড়ির আবরণ উন্মোচন হল অটো এক্সপো ২০২০-তে। নতুন গাড়ির ডিজাইনে সূক্ষ্ম পরিবর্তন এসেছে। নতুন ইগনিসে ১.২লিটার ক১২বি ইঞ্জিন থাকছে সঙ্গে ইস৬ নিয়মসিদ্ধ ইঞ্জিন।  এটি ৮৩ পিএস পাওয়ার আর ১১৩ এনএম টর্ক উৎপন্ন করে। ৪.৭৪ লাখ টাকা থেকে দাম শুরু। ২০ এমপিএল মাইলেজ দেয়। ফুয়েল ক্যাপাসিটি ৩২ লিটার।

মারুতি ইগনিস--মারুতি ইগনিস গাড়ির আবরণ উন্মোচন হল অটো এক্সপো ২০২০-তে। নতুন গাড়ির ডিজাইনে সূক্ষ্ম পরিবর্তন এসেছে। নতুন ইগনিসে ১.২লিটার ক১২বি ইঞ্জিন থাকছে সঙ্গে ইস৬ নিয়মসিদ্ধ ইঞ্জিন। এটি ৮৩ পিএস পাওয়ার আর ১১৩ এনএম টর্ক উৎপন্ন করে। ৪.৭৪ লাখ টাকা থেকে দাম শুরু। ২০ এমপিএল মাইলেজ দেয়। ফুয়েল ক্যাপাসিটি ৩২ লিটার।

মারুতি সেলেরিও-- মারুতি সুজুকি লঞ্চ করেছে বিএস৬ নিয়মসিদ্ধ সেলেরিও, যার দাম  ৪.৪১ লাখ টাকা। এই গাড়িতে আছে ১.০ লিটার তিনিটি সিলিন্ডারারের পেট্রল ইঞ্জিন যা ৬৮ পিএস ও ৯০ এনএম উৎপন্ন করে।  ফুয়েল ক্যাপাসিটি রয়েছে ৩৫ লিটার। মাইলেজ০ ২১-৩১ কেএমপিএল।

মারুতি সেলেরিও-- মারুতি সুজুকি লঞ্চ করেছে বিএস৬ নিয়মসিদ্ধ সেলেরিও, যার দাম ৪.৪১ লাখ টাকা। এই গাড়িতে আছে ১.০ লিটার তিনিটি সিলিন্ডারারের পেট্রল ইঞ্জিন যা ৬৮ পিএস ও ৯০ এনএম উৎপন্ন করে। ফুয়েল ক্যাপাসিটি রয়েছে ৩৫ লিটার। মাইলেজ০ ২১-৩১ কেএমপিএল।

টাটা টিয়াগো--টাটা টিয়াগো গ্লোবাল এনসিএপি থেকে পেয়েছে ৪ স্টার সেফটি রেটিং। এই গাড়িকে সবথেকে নিরাপদ গাড়ির তকমা দেওয়াই যায়। এই গাড়িতে দুটি এয়ারব্যাগ, ইবিডি, সিল্টবেল্ট সবরকম  সুরক্ষা পদ্ধতি দ্বারা সুরক্ষিত। এই গাড়ির দাম শুরু হচ্ছে ৪.৬০ লাখ টাকা থেকে। ১.২ লিটারের পেট্রল ইঞ্জিন ও ১.০৫ লিটারের ডিজেল ইঞ্জিন এই দুই ধরণের বিকল্পে পাওয়া যায়। ভিক্ট্রি ইয়ালো, ফ্লেম রেড, পার্লেসেন্ট হোয়াইট, পিওর সিল্ভার, ডেটোনা গ্রে, টেক্টোনিক ব্লু এই ছয় রকম রঙে এই গাড়ি পাওয়া যায়।

টাটা টিয়াগো--টাটা টিয়াগো গ্লোবাল এনসিএপি থেকে পেয়েছে ৪ স্টার সেফটি রেটিং। এই গাড়িকে সবথেকে নিরাপদ গাড়ির তকমা দেওয়াই যায়। এই গাড়িতে দুটি এয়ারব্যাগ, ইবিডি, সিল্টবেল্ট সবরকম সুরক্ষা পদ্ধতি দ্বারা সুরক্ষিত। এই গাড়ির দাম শুরু হচ্ছে ৪.৬০ লাখ টাকা থেকে। ১.২ লিটারের পেট্রল ইঞ্জিন ও ১.০৫ লিটারের ডিজেল ইঞ্জিন এই দুই ধরণের বিকল্পে পাওয়া যায়। ভিক্ট্রি ইয়ালো, ফ্লেম রেড, পার্লেসেন্ট হোয়াইট, পিওর সিল্ভার, ডেটোনা গ্রে, টেক্টোনিক ব্লু এই ছয় রকম রঙে এই গাড়ি পাওয়া যায়।

ডাটসান গো প্লাস-- ডাটসান গো প্লাসের দাম শুরু হচ্ছে ৪.১৫ লাখ টাকা থেকে। এই গাড়িতে আছে ১.২লিটার তিনটি সিলিন্ডারের ইঞ্জিন যা থেকে ৬৮ পিএস পাওয়ার আর ১০৪এনএম টর্ক উৎপন্ন হয়। মাইলেজ ১৯ কেওএমপিএল। ফুয়েল ধারণ ক্ষমতা- ৩৫ লিটারস।

ডাটসান গো প্লাস-- ডাটসান গো প্লাসের দাম শুরু হচ্ছে ৪.১৫ লাখ টাকা থেকে। এই গাড়িতে আছে ১.২লিটার তিনটি সিলিন্ডারের ইঞ্জিন যা থেকে ৬৮ পিএস পাওয়ার আর ১০৪এনএম টর্ক উৎপন্ন হয়। মাইলেজ ১৯ কেওএমপিএল। ফুয়েল ধারণ ক্ষমতা- ৩৫ লিটারস।

loader