অঙ্কিতা ভাণ্ডারীর মৃত্যুর দিন নিয়ে প্রশ্ন পরিবারের, পোস্টমর্টেম রিপোর্ট নিয়ে আশঙ্কা বাবা-মায়ের

| Sep 25 2022, 06:05 PM IST

অঙ্কিতা ভাণ্ডারীর মৃত্যুর দিন নিয়ে প্রশ্ন পরিবারের, পোস্টমর্টেম রিপোর্ট নিয়ে আশঙ্কা বাবা-মায়ের

সংক্ষিপ্ত

প্রশাসনের সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠকের পর নিহতের পরিবার অঙ্কিতা ভাণ্ডারীর শেষকৃত্যে সম্মতি জানায়। পাশাপাশি উত্তরাণ্ডজুড়ে অঙ্কিতার অস্বাভাবিক মৃত্যুর প্রতিবাদে যে অবরোধ বিক্ষোভ চলছে তা তুলে নিতে স্থানীয়দের কাছে আবেদন জানান নিহতের বাবা। তবে রবিবার অঙ্কিতার পরিবার পোস্টমর্টেম রিপোর্ট ও অঙ্কিতার মৃত্যুর দিন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে।

ফরেন্সিক রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত অঙ্কিতা ভাণ্ডারীর শেষকৃত্য করতে সম্মত ছিল না নিহতের পরিবার। কিন্তু প্রশাসনের সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠকের পর নিহতের পরিবার অঙ্কিতা ভাণ্ডারীর শেষকৃত্যে সম্মতি জানায়। পাশাপাশি উত্তরাণ্ডজুড়ে অঙ্কিতার অস্বাভাবিক মৃত্যুর প্রতিবাদে যে অবরোধ বিক্ষোভ চলছে তা তুলে নিতে স্থানীয়দের কাছে আবেদন জানান নিহতের বাবা। তবে রবিবার অঙ্কিতার পরিবার পোস্টমর্টেম রিপোর্ট ও অঙ্কিতার মৃত্যুর দিন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে। 

প্রথমে নিহতের পরিবারের দাবি ছিল দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ সংরক্ষণ করতে হবে। ফরেন্সিক রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত তারা অঙ্কিতার শেষকৃত্য করতে রাজি ছিল না। অঙ্কিতা ভাণ্ডারীর পরিবারে উত্তরাখণ্ড পুলিশের ওপর পুরোপুরি আস্থা রাখতে পারেনি। পুলিশের বিরুদ্ধে গাফলতিরও অভিযোগ ছিল তাদের। 

Subscribe to get breaking news alerts

অঙ্কিতার পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ 
১. অঙ্কিতাকে ১৮ বা ১৯ সেপ্টেম্বর হত্যা করা হয়নি। 
২. অঙ্কিতাকে কোথাও লুকিয়ে রাখা হয়েছিল
৩. পুলিশের কাছে অঙ্কিতার পরিবার নিখোঁজ ডায়েরি করে তারপর পুলিশ অঙ্কিতার খোঁজে তল্লাশি শুরু করে। পুলিশকে এই মামলায় চাপ দিয়ে কাজ করানোর আগে পর্যন্ত অঙ্কিতা বেঁচে ছিল বলেও অনুমান পরিবারের। 
৪. অঙ্কিকার পরিবারের অভিযোগ, চলতি সপ্তাহের গোড়ার দিকেই অঙ্কিতাকে হত্যা করা হয়েছে। 
৫. অঙ্কিতার বাবা ও মায়ের অভিযোগ, পুলিশি তদন্তে ভয় পেয়ে বা পুলিশের কাছ থেকে পুলকিতরা খবর অঙ্কিতা মামলার খবর পাওয়ার পরই তাঁকে হত্যা করেছিল। 
৬. অঙ্কিতার পরিবারের অভিযোগ, চিলা খালে ফেলে দেওয়া হয়েছিল অঙ্কিতা। পুলকিতদের দাবি অনুযায়ী যেখানে ফেলা হয়েছিল সেখান থেকেই অঙ্কিতার দেহ উদ্ধার হয়েছে। কিন্তু গঙ্গায় প্রবল স্রোতের কারণে একই জায়গায় অঙ্কিতার দেহ কী করে আটকে থাকল? তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অঙ্কিতার পরিবারের সদস্যরা।
৭. অঙ্কিতার শরীর জলে ডুবে থাকার কারণে ফুলে দিয়েছিল - কিন্তু শরীরে কোন পচন ধরেনি। ৬-৭ দিন আগে অঙ্কিতার যদি জলে ডুবে মৃত্যু হয় তাহলে শরীরে পচন ধরতে বাধ্য। 
৮. পোস্টমর্টেম রিপোর্ট অনুযায়ী অঙ্কিতার শরীরে বেশ কিছু ভোঁতা আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এই চিহ্নগুলি কিসের তা এখনও স্পষ্ট করতে পারেনি পুলিশ। ধৃতদের বয়ান অনুযায়ী কথাকাটাকাটির মধ্যেই অঙ্কিতাকে খালের জলে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়েছিল পুলকিত। তাহলে আঘতের চিহ্ন এল কোথা থেকে? 
৯. অঙ্কিতার পরিবারের অভিযোগ পোস্টমর্টেমের রিপোর্টটি মৌলিক, সেখানে ফরেন্সিকের কোনও উল্লেখ নেই। তাই রিপোর্টটি কতটা বিশ্বাসযোগ্য তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তাঁরা। 
১০. রাজ্য পুলিশের ওপর অঙ্কিতার পরিবারের তেমন কোনও আস্থা নেই। তদন্তে গাফিলতির অভিযোগও তুলেছে তারা। পাশাপাশি তদন্ত যাতে সঠিকভাবে হয় তারজন্য ফরেন্সিক রিপোর্টেরও দাবি জানিয়েছেন। অন্যদিকে রিসর্টের বিস্তারিত নথিও তারা চেয়েছেন। পাশাপাশি উত্তরাখণ্ডের রিসর্টটি কেন দ্রুত ভেঙে ফেলা হল তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তাঁরা। তাঁদের অভিযোগ তথ্য প্রমাণ লোপাটের জন্যই রিসর্ট ভেঙে ফেলা হয়েছে।

'আমার ছেলে সিধা-সাদা, এই কাজ করতে পারে না', দাবি করলেন অঙ্কিতা খুনে মূল অভিযুক্ত পুলকিতের বাবা বিনোদ

অঙ্কিতার দর উঠেছিল ১০ হাজার টাকা, গরিব হলেও নিজেকে বিক্রিতে রাজি ছিল না- সেই কারণেই খুন বলল নিহতের বন্ধু

আতঙ্কের দিল্লি, ১২ বছরের ছেলেকে চারজন মিলে গণধর্ষণ- গোপনাঙ্গে ঢুকিয়ে দেওয়া হল রড