Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Jammu Kashmir: নিহত ২ ব্যবসায়ী কি জঙ্গি সমর্থক, প্রশ্নের মুখে শ্রীনগরের জঙ্গি বিরোধী অভিযান


আলতাফ ভাট হায়দারপোড়ার বাণিজ্যিক কমপ্লেক্সের মালিক ছিলেন। সেখানেই তাঁর নিজের একটি হার্ডওয়ার ও সিস্টেমের দোকান ছিল।এই কমপ্লেক্সেই ডেন্টাল সার্জনের প্রশিক্ষণ থাকা সত্ত্বেও একটি কম্পিউটার সেন্টার চালাতেন মুদসির গুল। 

due to operation 2 businessman killed in Srinagar cops say they supported terrorist bsm
Author
Kolkata, First Published Nov 16, 2021, 5:20 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

শ্রীনগরে (Srinagar) নিরাপত্তা বাহিনীর সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানে (Anti Terrorist Operation) দুই ব্যবসায়ীসহ (2 businessman )চার জনের মৃত্যু হয়েছে। জম্মু ও কাশ্মীরের পুলিশ (Jammu Kashmir Police) জানিয়েছে, নিহত দুই ব্যবসায়ী জঙ্গিদের সমর্থক (supported terrorist) ছিল। নিহতরা হল ডক্টর মুদাসির গুল ও আলতাফ ভাট। হায়দারপোড়ার বাণিজ্যিক কমপ্লেক্সে সোমবার সন্ধ্যায় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষ বেধেছিল পুলিশের। সেখানেই চার জনের মৃত্যু হয়েছে। 

আলতাফ ভাট হায়দারপোড়ার বাণিজ্যিক কমপ্লেক্সের মালিক ছিলেন। সেখানেই তাঁর নিজের একটি হার্ডওয়ার ও সিস্টেমের দোকান ছিল।এই কমপ্লেক্সেই ডেন্টাল সার্জনের প্রশিক্ষণ থাকা সত্ত্বেও একটি কম্পিউটার সেন্টার চালাতেন মুদসির গুল। পুলিশের দাবি দুই ব্যবস্থায়ীয় তাঁদের ব্যবসাবাণিজ্যের আড়াতে জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদীদের সহযোগিতা করত। তবে জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি এই হত্যাকাণ্ডের তদন্তের দাবি জানিয়েছেন। পাশাপাশি ঘটনারও তীব্র নিন্দা করেছেন। 

Purvanchal Expressway: পূর্বাঞ্চল এক্সপ্রেসওয়ের উদ্বোধন, যোগীকে পাশে নিয়ে মোদীর নিশানায় 'আগের সরকার'

মেহবুবা সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে বলেছেন, নিরীহ সাধারণ মানুষকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করা, ক্রস ফায়ারিং-এ তাদের হত্যা করা, আর প্রয়োজনে তাদের সন্ত্রাসবাদীর তকমা সেঁটে দেওয়া এখন ভারত সরকারের নিত্যনৈমিত্তিক কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। গোটা ঘটনার বিচারবিভাগীয় তদন্তেরও দাবি জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি এজাতীয় ঘটনা বন্ধ করার জন্যও সওয়াল করেন তিনি। 

Communist Wedding: সাত পাকে বাঁধা পড়লেন এঙ্গেল, সাক্ষী থাকলেন লেনিন, মার্কস আর হো-চি-মিন

নিহতদের পরিবারের দাবি, ক্রস ফারায়ের সময় গুলিতে নিহত হয়েছে দুই ব্যবসায়ী। কিন্তু পুলিশ সেই দাবি উড়িয়ে দিয়েছে। পাশাপাশি বলেছে দুজনেই সন্ত্রাসবাদীদের সহযোগিতা করত। নিহতদের দেহের দাবি জানিয়েছে পরিবার। কিন্তু স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে, আইনশৃঙ্খলার কারণে দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে না। শ্রীনগর থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূরে উত্তর কাশ্মীরের হান্দাওয়ারায় একটি এলাকায় চারটি দেহ পুঁতে রাখা হয়েছে বলেও পুলিশ জানিয়েছে।

TMC vs BJP: অধ্যাদেশের অপব্যবহার করেছে মোদী সরকার, ডেরেকের দাবির পাল্টা দাবি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

 নিহত ব্য়বসয়ী আলতাফ ভাটের ভাইঝি সামায়া ভাট সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে তাঁর কাকা বেকুসুর বলে দাবি করেছেন। তিনি বলেছেন, শীতের রাতে হান্দোয়ারাতে পুলিশ তাঁকে হত্যা করেছিল। প্রথম তাঁকে মানবিক ঢাল হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছিল। কিন্তু  এখন তাঁকে জঙ্গিদের সমর্থনকারী তকমা দেওয়া হচ্ছে। 

জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের পক্ষ থেকে বিজয় কুমার বলেছেন মুদাসিরের একটি কম্পিউটার সেন্টার ছিল। পাশাপাশি সেটি একটি অনুমোদিত কল সেন্টারও । সেখান থেকে ৬টি কম্পিউটার উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশের দাবি বাণিজ্যিক কমপ্লেক্সে কলসেন্টার চালান হচ্ছে জঙ্গিদের সাহায্য করার জন্য। তবে আলতাফ ও মুদাসির দেহ আইনশৃঙ্খলার কারণেই ফিরিয়ে দেওয়া হয়েনি। কিন্তু শেষকৃত্যে যোগ দেওযার জন্য দুটি পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। 

প্রাথমিকভাবে পুলিশের দাবি দুই ব্যবসায়ীই জঙ্গিদের গুলিতে নিহত হয়েছে। তবে ক্রস ফায়ারিং-এর মাঝে পড়েও তাদের মৃত্যু হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এই ঘটনার তদন্ত হওয়ার জরুরি তাদের পিস্তল না রাইফেলের গুলি লেগেছে। কারণ এনকাউন্টার স্থান থেকে উদ্ধার হয়েছে পিস্তল। নিহতরা যদি পিস্তলের গুলিতে মারা যায় তাহলে জঙ্গিদের গুলিতে তারা নিহত হয়েছে। আর যদি রাইফেল থাকে তাহলে তা পুলিশের। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios