Asianet News BanglaAsianet News Bangla

খড়কুটোর মত ভাসিয়ে নিয়ে গেছে বৃষ্টির জল, হড়পা বান আর ভূমিধসে বিপর্যস্ত হিমাচল

প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিপর্যস্ত হিমাচল প্রদেশ। প্রবল বৃষ্টি, হড়পা বান আর ভূমিধসে ত্রস্ত পাহাড়ি রাজ্যটি। প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে একই পরিবারের ৮ জন-সহ ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে এখনও পর্যন্ত। খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না ৫ জনের।

Himachal Pradesh 22 dead  5  missing  in flash flood and landslide bsm
Author
Kolkata, First Published Aug 20, 2022, 9:44 PM IST

প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিপর্যস্ত হিমাচল প্রদেশ। প্রবল বৃষ্টি, হড়পা বান আর ভূমিধসে ত্রস্ত পাহাড়ি রাজ্যটি। প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে একই পরিবারের ৮ জন-সহ ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে এখনও পর্যন্ত। খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না ৫ জনের। নিখোঁজ পাঁচ জনেরও মৃত্যু হয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। শনিবার রাজ্যের দুর্যোগ মোকাবিলা বিভাগের পরিচালক সুদেশ কুমার মেহতা রাজ্যের পরিস্থতিথি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। 

মান্ডি, কাংড়া, চাম্বা - এই তিনটি জেলা প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মাণ্ডিতে মানালি - চণ্ডিগড় জাতীয় মহাসড়ক ও শোঘির সিমলা - চণ্ডিগড় মহাসড়ক সহ ৭০০র বেশি রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে। যান চলাচল পুরোপুরি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।  শুধুমাত্র মাণ্ডিতেই প্রবল বৃষ্টি আর ভূমিধসের কারণে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই জেলা থেকেই ৫ জন নিখোঁজ রয়েছে। 

স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে মেঘ কেটে যাওয়ার পর বাঘি ও পুরাতন কোটালা এলাকার বেশ কিছু পরিবারকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। ইতিমধ্যেই তাঁদের নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সিমলায় দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। আর জলের তোড়ে আহত হয়েছে দুই জন। 


প্রবল বৃষ্টির কারণে ভোর সাড়ে ৪টার দিকে চাম্বার ছোয়ারির বানেট গ্রামে ভূমিধসের পর তাদের বাড়ি ধসে তিনজন নিহত হয়েছেন। কাংড়ায়  ভূমিধসের কারণে ৯ বছরের শিশুর মৃত্যু হয়েছএ। শনিবার সকাল থেকেই কাংড়াসহ বেশি কয়েকটি জেলা প্রবল বৃষ্টি হয়েছে। জলের তোড়ে খড়কুটোর মত ভেসে গেছে চাক্কি সেতু। জাহিন্দরনগর - পাঠানকোট রুটের ট্রেন চলাচল পুরোপুরি ব্যাহত হয়েছে। রেল এই সেতুটিকে বর্তমানে নিরাপদ নয় বলেও ঘোষণা করেছে। হরিরামপুরে হড়পা বানে আটকে পড়া ৩০ জনকে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে। 

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম ঠাকুর ও বিজেপির সভাপতি জেপি নাড্ডায় নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। বলেছেন প্রশাসন ক্ষতিগ্রস্ত জেলাগুলিতে যুদ্ধকালীন তৎপরতার সঙ্গে উদ্ধারকাজ করছে। জেলাগুলির ত্রাণ ও উদ্ধারকাজের জন্য ইতিমধ্যেই কয়েক কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। 

অন্যদিকে শনিবার ভোরবেলা উত্তরাখণ্ডের দেরহাদুনের রায়পুর-কুমালদা এলাকায় মেঘভাঙা বৃষ্টি হয়। যার কারণে একধিক পাহাড়ি নদীর তীর ভেঙে যায়। বেশ কয়েকটি নদীর জল এতটাই বেড়ে যায় জলের তোড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয় রেল ব্রিজ বা সাধারণ ব্রিজ। টন নদীর তীরে অবস্থিত বিখ্যাত তাপকেশ্বর শিবমন্দিরের গুহাতেও ঢুকে পড়েছে নদীর জল। 

দেওঘরের পর এবার হিমাচলে রোপওয়েতে সমস্যা, মাঝ আকাশ থেকে উদ্ধার ১১জন যাত্রী!

'প্রভাবশালী' তত্ত্বেই অনুব্রতর জামিনের আবেদন খারিজ, তৃণমূল নেতার স্বাস্থ্যের খোঁজ নিলেন বিচারক

মুখের জমা মেদে হারিয়ে যাচ্ছে সৌন্দর্য? পুজোর আগে গালের চর্বি কমানোর জন্য রইল টিপস

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios