অন্যের সঙ্গে দুর্গা-দর্শন পছন্দ হয়নি প্রেমিকের, ধর্ষণ করে হত্যার চেষ্টা প্রেমিকাকে

| Oct 07 2022, 11:24 PM IST

অন্যের সঙ্গে দুর্গা-দর্শন পছন্দ হয়নি প্রেমিকের, ধর্ষণ করে হত্যার চেষ্টা প্রেমিকাকে

সংক্ষিপ্ত

অসমের কাছাড় জেলায় একটি ১৬ বছর বয়সী  কিশোরীকে ধর্ষণ করে খুনের চেষ্টার অভিযোগ এক ২৫ বছর বয়সীকে ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃত ব্যক্তি প্রথমে কিশোরীকে অপহরণ করে বলেও অভিযোগ  করেছে পুলিশের। পুলিশ জানিয়েছে কিশোরী অন্য কারোর সঙ্গে দুর্গা পুজোর প্যান্ডেলে গিয়েছিল

অসমের কাছাড় জেলায় একটি ১৬ বছর বয়সী  কিশোরীকে ধর্ষণ করে খুনের চেষ্টার অভিযোগ এক ২৫ বছর বয়সীকে ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃত ব্যক্তি প্রথমে কিশোরীকে অপহরণ করে বলেও অভিযোগ  করেছে পুলিশের। পুলিশ জানিয়েছে কিশোরী অন্য কারোর সঙ্গে দুর্গা পুজোর প্যান্ডেলে গিয়েছিল। আর তারই প্রতিশোধ নিতে ওই ব্যক্তি কিশোরীকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে খুনের চেষ্টা করে। 


নির্যাতিতার পরিবার জানিয়েছে, মেয়েটির গলা কেটে খুনের চেষ্টা করা হয়েছে। কিশোরীকে ব্যাগে ভরে একটি জঙ্গলে ফেলা দেওয়া হয়। কিন্তু তারপরেও কিশোরী প্রাণে বেঁচে যায়।  নিজেকে ব্যাগ থেকে বার করে কোনও রকমে জীবন হাতে করেই ছেঁড়া জামাকাপড়  পরে বাড়ি ফিরে আসে। বর্তমানে কিশোরীর চিকিৎসা চলছে। 

Subscribe to get breaking news alerts

পুলিশ জানিয়েছেন অভিযুক্ত সঞ্জয় তেলি। কাছাড় জেলার একটি চা বাগানের শ্রমিক। মেয়েটির প্রাথমিক বয়ানের ভিত্তিতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মেয়েটির পরিবার জানিয়েছে ৩ অক্টোবর দুর্গাপুজো দেখতে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল। রাতভর নিখোঁজ থাকার পর ৪ অক্টোবর বিকেলে বাড়ি ফেরে। তারপরই তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পুলিশ কর্তা জানিয়েছেন, নির্যাতিতার বয়ান অনুযায়ী অভিযুক্ত সঞ্জয় তেলি মেয়েটিকে অপহরণ করে তাকে একটি জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে গলা কেটে হত্যা করার চেষ্টা করেছিল। 

কাছাড়ের পুলিশ সুপার নুমাল মাহাত্তা বলেছেন, তদন্তে দেখা গেছে মেয়েটির সঙ্গে অভিযুক্তের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু মেয়েটি অন্য একজনের সঙ্গে দুর্গা ঠাকুর দেখতে গিয়েছিল। তাতেই বিরক্ত হয়ে মেয়েটির ওপর শোধ তুলতে চেয়েছিল সঞ্জয়। পুলিশ সূত্রের খবর তেলি যে অস্ত্র দিয়ে মেয়েটিতকে হত্যার চেষ্টা করেছিল সেই অস্ত্রটি ইতিমধ্যেই খুঁজে বার করেছে পুলিশ। 

পুলিশ জানিয়েছে নির্যাতিতার প্রাথমিক বয়ানের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্তকে। তবে নির্যাতিতা সুস্থ হলে আরও বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। তবে নির্যাতিতার পরিবার অভিযুক্তের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছে।  তারা জানিয়েছে, এজাতীয় ব্যক্তির শাস্তি পাওয়া দরকার। এজাতীয় ব্যক্তি সমাজের পক্ষে ক্ষতিকর। 

মালবাজার নিয়ে বিজেপি-তৃণমূলের রাজনৈতিক তরজা, সবমিলিয়ে উদ্ধার ৪৫০

দিল্লির স্কুলের শৌচালয়ে কিশোরীকে গণধর্ষণ, বিষয়টি ধাপাচাপা দেওয়ার অভিযোগ স্কুলের বিরুদ্ধে

পুজো কার্নিভালে নিরাপত্তা, শনিবার একদিনের জন্য আন্দোলনে বিরতি SSC চাকরি প্রার্থীদের

null