এক বৃদ্ধ দম্পতিকে দেখাশোনার কাজ করতেন শহরের এক অভিজাত আবাসনে। আচমকাই আবাসনের ৯ তলা থেকে পড়ে মৃত্যু হল পরিচারিকার। অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে গড়িয়াহাটে।

আরও পড়ুন: 'অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে আলু-পেঁয়াজের দাম', মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে কেন্দ্রের কাছে অনুরোধ তৃণমূলের

মৃতের নাম প্রণতি মণ্ডল। গড়িয়াহাটের ম্যান্ডেভিলা গার্ডেনসের এক বৃদ্ধ দম্পতিকে দেখাশোনা কাজ করতেন কুড়ি বছর ধরে। আবাসনের সকলেই চিনতেন প্রণতিকে। তাঁরা জানিয়েছেন, ওই বৃদ্ধ দম্পতির প্রায় পরিবারের সদস্যের মতোই হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। গেরস্থালির যাবতীয় কাজই কার্যত একার হাতে সামলাতেন বাড়ির পরিচারিকাই। কিন্তু কোথায় থেকে কী যে হয়ে গেল! বুঝতে উঠতে পারছেন না কেউ। পুলিশ জানিয়েছে, রবিবার দুপুরে ম্যান্ডেভিলা গার্ডেনসের ন'তলায় একটি ফ্ল্যাটের বারান্দার কাপড় শুকোতে দিচ্ছিলেন প্রণতি। আচমকাই নিচে পড়ে যান তিনি। প্রচন্ড শব্দ শুনে নিরাপত্তারক্ষী যখন ঘটনাস্থলে পৌঁছন, তখন দেখেন রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন মধ্য়বয়সী ওই মহিলা। এক ঝলক দেখেই নিরাপত্তারক্ষীরা  চিনতে পারেন তাঁকে। সঙ্গে সঙ্গে খবর দেওয়া হয় গড়িয়াহাট থানায়। দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: এক ধাক্কায় নামল তাপমাত্রার পারদ, কলকাতায় হালকা শীতের আমেজ, উত্তর ও দক্ষিণে শুষ্ক ও আর্দ্রতাজনিত আবহাওয়া

কীভাবে মারা গেলেন ওই পরিচারিকা? যে বৃদ্ধ দম্পতির বাড়িতে কাজ করতেন, সেই বৃদ্ধ দম্পতিকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, প্রণতি মৃগীরোগ ছিল। এই রোগে যাঁরা আক্রান্ত হন, তাঁরা সাধারণত আচমকাই খিঁচুনির পর জ্ঞান হারান। এক্ষেত্রে তেমনটাই ঘটেছে বলে প্রাথমিক অনুমান পুলিশের। তদন্তকারীদের ধারনা, জামাকাপড় শুকোতে দেওয়ার সময়ে ব্যালকনির ওই অংশটি পিছল হয়ে গিয়েছিল, তাই জ্ঞান হারানোর সঙ্গে সঙ্গেই নিচে পড়ে যান প্রণতি। ময়নাতদন্তে রিপোর্ট আসার অপেক্ষা করছে পুলিশ।