বুধবার দিনভর মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে বেধড়ক মারধর করে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল বাবা-মা ও ভাইয়ের বিরুদ্ধে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে  গরফা থানার ১৫ নম্বর বিহারী মন্ডল রোডে। ভাঙচুর করা হয় অভিযুক্তদের বাড়ি। মৃতের নাম পূর্ণেন্দু মণ্ডল।

 

 

আরও পড়ুন, বৃহস্পতিবার কলকাতা মেট্রোর ট্রায়াল রান শুরু, সংক্রমণ রুখতে চালু শুধুই স্মার্ট কার্ড

 স্থানীয়দের দাবি, গতকাল বাবা মা এবং ছোট ছেলে মিলে মানসিক ভারসাম্যহীন ওই যুবককে মারধর করে।  এরপর শরীরে ধারালো বটি দিয়ে কোপানো হয়। এরপর রক্তাক্ত অবস্থায় দীর্ঘক্ষণ ফেলে রাখা হয় ঘরেই। বেশ কিছুক্ষণ পর অবস্থা বেগতিক বুঝে ওই যুবককে হাসপাতালে নিয়ে যায় অভিযুক্তরা। সেখানে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করে। বৃহস্পতিবার সকালে মৃত্যুর খবর এলাকায় পৌঁছতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয়রা।

আরও পড়ুন, শহরের রাস্তায় এবার নামতে পারে মিনিবাস, উঠলেই গুনতে হবে ১৪ টাকা

অভিযুক্তদের আটক করতে পুলিশ ওই এলাকায় গেলে স্থানীয় বাধার মুখে পড়তে হয় তাঁদের। উত্তেজিত জনতা অভিযুক্তদের তাঁদের হাতে তুলে দেওয়ার দাবি জানাতে থাকেন। তাতে সম্মতি না দেওয়ায় আক্রান্ত হন পুলিশ আধিকারিকরা। স্থানীয়দের অভিযোগ, গ্রিল বন্ধ রেখে প্রায়শই মারধর করত ওরা ছেলেকে। ছেলের মানসিক অবস্থা ঠিক না, তাই সব সময় নির্যাতন করে ওরা।  দীর্ঘক্ষণ পর অভিযুক্তদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। 

 

 

 রাজ্য়ে ৪০০০ ছাড়াল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমিত ১৯৩

করোনা আক্রান্ত রাজ্য়ের তৃণমূল বিধায়ক, কালীঘাটের ফ্ল্য়াট সিল করে বসল পুলিশি প্রহরা

করোনা আক্রান্ত বেলেঘাটা থানার আধিকারিক সহ পরিবারের ৬ সদস্য, আইডিতে এখন চিকিৎসধীন

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসিস্ট্যান্ট

কোভিড পজিটিভ হয়ে মৃত্য়ু প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবনের