করোনায় আরও ছটি নতুন উপসর্গের কথা জানাল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক। বয়স্ক ও জটিল রোগে আক্রান্তদের ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি।  এদিকে,   বিশেষজ্ঞদের মতে, নতুন উপসর্গ গুলি স্বাভাবিকভাবেই বয়ষ্ক রোগী ক্ষেত্রেই দেখা যায়।

আরও পড়ুন, বিধাননগর পুর এলাকায় করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া বেড়ে ৫৫০, সংক্রমিত এক পুলিশ কর্তাও

সম্প্রতি করোনা সংক্রমণের চিকিৎসার পদ্ধতি নিয়ে 'ক্লিনিক্য়াল ম্য়ানেজমেন্ট প্রোটোকল ফর কোভিড ১৯' নামে একটি রুপরেখা প্রকাশ করেছে  কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। ক্লান্তি, অসর্তকতা, চলা ফেরায় অসংলগ্নতা, ক্ষিদে না থাকা, অসংলগ্ন কথা  বলা এবং জ্বর না থাকা।  কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে,  ৬০ বছর বা ৬০ উর্ধ্ব অন্য় রোগে আক্রান্ত , কড়া ডোজের ওষুধ খাওয়া এবং দীর্ঘ দিন ধরে জটিল রোগে আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রে এই  ৬ টি নতুন উপসর্গের দেখা যাওয়ার প্রবণতা বেশি রয়েছে।  প্রধানত ক্য়ান্সার আক্রান্ত, ডায়াবেটিস রোগী, হাইপারটেশন, হৃদ যন্ত্রের সমস্যা, ফুসফুসে সংক্রমণ এবং কিডনির জটিল রোগে আক্রান্তেদের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন, বেহালা কাণ্ডে উঠে এল হাড় হিম করা তথ্য, আগুন লাগিয়ে আত্মঘাতী মা ও মেয়ে

  বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, নতুন উপসর্গ গুলি স্বাভাবিকভাবেই বয়ষ্ক রোগী ক্ষেত্রেই দেখা যায়। ফলে কে আক্রান্ত কিংবা কে নয়, সেটা বুঝতে অনেকটাই সময় চলে যাচ্ছে। ফলে শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছে আক্রান্তদের। দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া বাড়তে বাড়তে ৭ লক্ষের কাছাকাছি। মৃতের সংখ্য়া দ্রুত গতিতে এগোচ্ছে সাড়ে উনিশ হাজারের দিকে। এই পরিস্থিতিতে উদ্য়োগ আরও বাড়িয়ে করোনা সংক্রমণের আরও ৬ টি নতুন উপসর্গের কথা ঘোষণা করল  কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক। 

 

 

সব রেকর্ড ব্রেক, রাজ্য়ে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৮৯৫

করোনায় আক্রান্ত বিধাননগরের ডিসি ট্রাফিক, উপসর্গ না থাকায় সপরিবার হোম কোয়ারেন্টাইনে

  মৃত্যুর পর ২ দিন বাড়ির ফ্রিজে করোনা দেহ, অভিযোগ 'সাহায্য মেলেনি স্বাস্থ্য দফতর-পুরসভার'

 করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু এক সেনা কর্তার, ফোর্ট উইলিয়ামের শোকের ছায়া

  অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিকলের পরও কোভিড জয়ী ৫৪-র দুধ ব্যবসায়ী, শহরকে দিলেন এক সমুদ্র আত্মবিশ্বাস

কোভিড রোগী ফেরালেই লাইসেন্স বাতিল, হাসপাতালগুলিকে হুঁশিয়ারি রাজ্য়ের

 কলকাতায় একদিনে চিহ্নিত প্রায় ২০০ বাড়ি, কনটেইনমেন্ট জোন বৃদ্ধির কারণ বললেন মুখ্যসচিব