ক্য়াট-এ সেরা স্থান দখল করলেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্য়ালয়ের ছাত্র দেবর্ষি চন্দ। এদিকে দেশের সেরা ম্য়ানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠানে পড়তে চান না তিনি। দেবর্ষি বরাবরই হোক কলরব  বা   নাগরিকত্ব আইন বিরোধী আন্দোলনের প্রতিবাদী মুখ। এবার তিনি অর্থনীতি নিয়ে গবেষণা করতে চান। তিনি জানিয়েছেন,  তিনি ডেভেলপমেন্ট ইকনমিক্স নিয়ে কাজ করতে চান। তাই আইআইএম-এ অর্থনীতি নিয়ে পিএইচডি করতে চান। 

আরও পড়ুন, পৌষ বিদায়ের আগেই জাঁকিয়ে নামবে শীত কলকাতায় ,পারদ নামবে হু হু করে


ক্যাট-এ সেরার বিচার হয় পার্সেন্টাইলে। আর ১০০ পার্সেন্টাইল পেয়েছেন ১০ জন পরীক্ষার্থী। তাদের মধ্য়েই অন্যতম হলেন দেবর্ষি চন্দ। তবে শুধু এ বার নয়, গতবছরও তিনি ক্যাট-এ বসেছিলেন। গত বার তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ছিল ৯৯.৮৩ পারসেন্টাইল। যে দশ জন ১০০ পার্সেন্টাইল পেয়েছেন তাঁদের সকলেই ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ছাত্র। এঁদের মধ্যে ছয় জন বিভিন্ন আইআইটি-র ছাত্র। অপর দু জন এনআইটি থেকে পড়াশানা করেছেন।এর মধ্য়ে রয়েছেন যাদবপুরের দেবর্ষি চন্দ । উল্লেখ্য়, মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১ লক্ষ ৩৪ হাজার ৯১৭ জন পরীক্ষার্থী ছিলেন ছাত্র। ছাত্রী ছিলেন ৭৫ হাজার ৪ জন। ৫ জন রূপান্তরকামী পরীক্ষার্থী ছিলেন।

আরও পড়ুন, বর্ধমান স্টেশনে পোর্টিকোয় ধস, ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক বলে দাবি পূর্ব রেলের

দেবর্ষি চন্দ, রহড়া রামকৃষ্ণ মিশন থেকে উচ্চধ্যমিক পাশ করার পরে ২০১৪ সালে যাদবপুরে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়াশোনা শুরু করেন । বি টেক পাশ করার পরে  যাদবপুরেরই তিনি স্কুল অব এনার্জি স্টাডিজ় -এ স্নাতকোত্তরের পড়াশোনা করছেন। প্রথম থেকেই  যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচিত মুখ দেবর্ষি। ছাত্র আন্দোলনেও তাঁকে বারবার সামনের সারিতে দেখা গিয়েছে। তারই সঙ্গে দেবর্ষি-র, ফুটবল অন্তে প্রাণ। আর এবার তার পাশাপাশি ক্যাট-এও তিনি সেরার খাতায় নাম লেখালেন।