ডিসেম্বেরই কি কলকাতায় চালু হতে চলেছে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো? তেমনই সম্ভাবনা কথা শোনালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তিনি জানিয়েছেন, ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর প্রথম পর্যায়ে সেক্টর-৫, করুণাময়ী, সেন্ট্রাল পার্ক ,সিটি সেন্টার, বেঙ্গল কেমিক্যাল ও সল্টলেকে স্টেডিয়াম- এই ছয়টি স্টেশনে পরিষেবার শুরু প্রস্তুতি চূড়ান্ত। এখন অপেক্ষা উদ্বোধনের।

আরও পড়ুন: ব্যারাকপুরের ৮ পুরসভাকে ভেঙে হবে কর্পোরেশন, কী বলছেন বিরোধীরা

গত আগস্ট মাসেই কলকাতায় ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর প্রথম পর্যায়ে পরিষেবা উদ্বোধনের ছাড়পত্র দিয়েছিল কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটি বা সিআরসি। নির্মাকারী সংস্থা ঘোষণা করেছিল, ৭ নভেম্বর সল্টেলেক সেক্টর ৫ থেকে স্টেডিয়াম পর্যন্ত প্রথম পর্যায়ে বাণিজ্যিকভাবে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর পরিষেবা উদ্বোধন হবে। এমনকী, তিন  দিন ধরে নির্দিষ্ট ওই রুটে মেট্রো চলাচলের মহড়াও চলে। মহড়া চলাকালীন মেট্রোর আধিকারিকরাই যাত্রীদের মতো টোকেন পাঞ্চ করে ট্রেনে ওঠেন, আবার গন্তব্যে পৌঁছানোর পর স্টেশন ছেড়ে বেরিয়ে যান। এতকিছুর পরে কিন্তু ৭ নভেম্বরে সেক্টর ৫ থেকে স্টেডিয়াম পর্যন্ত মেট্রো পরিষেবার উদ্বোধন হয়নি। 

এদিকে আবার সিআরসি-র ছাড়পত্রের মেয়াদ ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত জানা গিয়েছে। মেট্রো সূত্রে খবর, ৩০ নভেম্বর পর যদি মেট্রোর উদ্বোধন করতে হয়, সেক্ষেত্রে ফের নতুন করে সিআরসি-র কাছ থেকে ছাড়পত্র নিতে হবে।  বড়দিনের আগে কি সেই ছাড়পত্র পাওয়া সম্ভব? কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ের দাবি, ডিসেম্বরের প্রথম দিকে কলকাতায় প্রথম পর্যায়ে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো পরিষেবা চালু হয়, সেক্ষেত্রে ছাড়পত্র পেতে খুব একটা সমস্যা হবে না।

আরও পড়ুন: রাজ্যে ডেঙ্গুর বলি আরও ১, বাড়ছে মহামারীর আশঙ্কা

উল্লেখ্য, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে পুজোর আগেই হয়তো সল্টলেকে মেট্রো পরিষেবা চালু হয়ে যেত। কিন্তু টানেল বোরিং মেশিন দিয়ে মাটির নিচে সুড়ঙ্গ খুঁড়তে গিয়ে বিপর্যয় ঘটে যায় বউবাজারে। হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে বেশ কয়েকটি বাড়ি।  বউবাজারে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো কাজে স্থগিতাদেশ জারি করে কলকাতা হাইকোর্ট। পিছিয়ে যায় সেক্টর ৫ থেকে সল্টলেক স্টেডিয়াম পর্যন্ত মেট্রো পরিষেবার উদ্বোধনও।