আপাদমস্তক নীল-সাদা পোশাকের স্বাস্থ্যকর্মী দেখে খানিকটা ভয় পাচ্ছেনা বেলেঘাটা বস্তিবাসী। তবে তাদের মুহূর্তেই আপন করে, অভয়বাণী দিয়ে স্বাস্থ্য় পরীক্ষা করাতে কাছে ডাকছেন স্বাস্থ্য় কর্মীরা।জীবাণুনাশক রাসায়নিকের ভার কাঁধে নিয়ে বেলগাছিয়ার দিকে এগিয়ে চলেছেন কলকাতা পুরসভার স্বাস্থ্যকর্মীরা। শহর কলকাতায় কোভিড-নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির প্রথম দিনেই যুদ্ধ জয়ের ইঙ্গিত স্বাস্থ্য় কর্মীদের।

 এনআরএসে যুবকের মৃত্য়ুর জের, করোনা আক্রান্ত হলেন এবার এক নার্স

বেলেঘাটা বস্তির ভিতরে বাড়ির দোরগোড়ায় গিয়ে জ্বর, শ্বাসকষ্টের কোনও রোগী আছে কি না জিজ্ঞেস করছেন স্বাস্থ্য়কর্মীরা। । বস্তিবাসীর বেশীরভাগ মানুষই নেতিবাচক কথা শোনাচ্ছেন। অনেকে কথাটুকু বলতে চাইছেন না। তবে স্বাস্থ্যকর্মীর সঙ্গে 'ভয় নেই' মন্ত্রও আছে। অন্য়দিকে এর ব্য়তিক্রম চিত্র পাওয়া গেছে, এলাকার যুবকদের কাছ থেকে। কলকাতা পুরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ডের বেলগাছিয়া এলাকায় সম্প্রতি বেশ কয়েক জন করোনা রোগীর সন্ধান মিলেছে। এরই মধ্য়ে কয়েক জনের মৃত্যুও হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে করোনা রোধে এ দিন সরেজমিন এলাকা পরিদর্শনের কাজ শুরু হয় সেখানে। স্থানীয় কমিউনিটি হলে প্রাথমিক প্রশিক্ষণের পরে কাজ শুরু করেন পুরসভার স্বাস্থ্যকর্মীরা। 

আরও পড়ুন, ঝড়-বৃষ্টিতে ফুটপাতে রাত কাটছে স্বস্ত্রীক স্বাস্থ্যকর্মীর, সংক্রমণের ভয়ে তাড়িয়ে দিল বাড়িওয়ালা


অপরদিকে, এই প্রসঙ্গে স্থানীয় কাউন্সিলর শান্তনু সেন বলেন, 'অভিযানের প্রথম দিনে এ ধরনের কিছু ছন্দপতন ঘটবে, সেটা স্বাভাবিক। এলাকাবাসীর স্বার্থেই যে এ সব করা হচ্ছে, সেই বিশ্বাসটা অর্জন করতে হবে। এই আস্থা অর্জনের লক্ষ্য নিয়েই আমরা কাজে নেমেছি।'





আরও পড়ুন, লকডাউনে কলকাতায় আটকে পড়ে আত্মহত্য়ার চেষ্টা, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ভিন রাজ্য়ের ইঞ্জিনিয়ার

করোনার কোপে বন্ধ কলকাতার আস্ত একটি হাসপাতাল, ১০০ ছাড়িয়ে চিকিৎসক-নার্স সহ কোয়ারেন্টাইনে
 
পার্ক সার্কাসের বেসরকারি হাসপাতালে প্রৌঢ়ের মৃত্য়ু, করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসতেই অভিযোগ তুলল পরিবার