সারাদিনের গরমের দাপাদাপি বদলে যেতে পারে সন্ধ্য়ায়। ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে কোথাও কোথাও হাল্কা বৃষ্টি হতে পারে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে। সেক্ষেত্রে কলকাতার বেশকিছু জায়গায় ঝড়বৃষ্টির হতে পারে। ফলে প্রধানমন্ত্রী প্রদীপ জ্বালানোর আহ্বানে সাড়া দিতে গিয়ে সমস্য়ায় পড়তে পারে মহানগর। এমনই পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস।

'রাত ৯টায় প্রদীপ জ্বালিয়ে প্রমাণ করুন আমরা সবাই এক', মোদির সমর্থনে মনে করালেন ঋতুপর্ণা..

রবিবার সারাদিনই আকাশ আংশিক মেঘলা থেকেছে মহানগর। রাজ্যে ফের ঘূর্ণাবর্তের জেরে রবিবার এবং সোমবার গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টি হতে পারে। এমনটাই পূর্বাভাস দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। কলকাতা সহ গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে। হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, রবিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি বেশি। বঙ্গোপসাগরে বিপরীত ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হওয়ায় জলীয় বাষ্প ঢুকে পড়েছে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে। তাই  ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

করোনা নিয়েও 'রাজনীতি', মোদীর সর্বদলে থাকবে না তৃণমূল !

হাওয়া অফিস জানিয়েছে,কলকাতা-হাওড়া-হুগলি-নদিয়া ও দুই মেদিনীপুরে বিক্ষিপ্ত ভাবে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সঙ্গে কোনও কোনও এলাকায় দমকা হাওয়াও বইতে পারে। কলকাতা সহ ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় বৃষ্টি হতে পারে। তার সঙ্গে বইতে পারে দমকা হাওয়া। একই সঙ্গে আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আগামী কয়েক দিন তাপমাত্রার খুব একটা হেরফের না হলেও, বিভিন্ন জায়গায় বৃষ্টি হবে।  পাশাপাশি উপকূলের জেলাগুলিতে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বজ্রবিদ্যুৎ সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি।

মোদীর ডাকে বাতি জ্বালাচ্ছেন কারা, নজর রাখছে তৃণমূল.
  
রবিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি বেশি।  এদিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, এদিন বিক্ষিপ্তভাবে ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়া বইতে পারে। উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং-কালিম্পং-এ সামান্য বৃষ্টির সম্ভাবনা।  

শনিবারে শুধু উপকূলের জেলাগুলিতে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা ছিল। তবে যেভাবে জলীয়বাষ্প ঢুকছে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে, তাতে বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকলে রবিবার ও সোমবার ঝড় বৃষ্টি হতে পারে বিক্ষিপ্তভাবে। উত্তর-পশ্চিম ভারতের শীতল হাওয়া আর বঙ্গোপসাগর থেকে পূবালী হওয়ার সংঘাতেও তৈরি হচ্ছে বজ্রগর্ভ মেঘ। এই মুহূর্তে একটি পশ্চিমী ঝঞ্জা অবস্থান করছে জম্মু-কাশ্মীরের উপর। আরও একটি পশ্চিমী ঝঞ্জা আসবে রবিবার উত্তর পশ্চিম ভারতে।