রাজ্য়ে করোনা সংক্রমণের মোকাবিলায় কাজ করার জন্য এ বার পৌরসভার স্বাস্থ্যকর্মীদের উৎসাহ ভাতা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। এমনকি দৈনিক ভাতার ভিত্তিতে স্বেচ্ছাসেবকও নিয়োগ করতে পারবে পৌরসভা। স্বাস্থ্য দফতরের তরফে এই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন, কলকাতা ছেড়ে বাড়ি ফিরলেন ভিনরাজ্য়ের বাসিন্দা ১৮৫ নার্স, সঙ্কটে রাজ্যের বেসরকারি স্বাস্থ্য পরিষেবা

সারি অর্থাৎ সিভিয়র অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ইলনেস এবং আইএলআই অর্থাৎ ইনফ্লুয়েঞ্জা লাইক ইলনেস রোগীদের চিহ্নিত করার জন্য বাড়ি-বাড়ি যাচ্ছেন পৌরসভার স্বাস্থ্যকর্মীরা। তাঁদেরই অতিরিক্ত এক হাজার টাকা উৎসাহ ভাতার অনুমোদন দিয়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর। জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের মাধ্যমে তা জেলায় পৌঁছবে। স্বাস্থ্য দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, ওই কাজের জন্য স্বাস্থ্যকর্মীর সংখ্য়া কম হয়ে দাড়ালে পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করতে পারে। স্বেচ্ছাসেবকেরা দৈনিক ৭৫ টাকা ভাতা পাবেন। মাসে সর্বাধিক ২২ দিন কাজ করতে পারবেন তাঁরা। পৌরসভার পাশাপাশি গ্রাম পঞ্চায়েত স্তরে স্বেচ্ছাসেবকদের ব্যবহার করা হতে পারে।

আরও পড়ুন, 'পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরার সমস্ত খরচ বহন করবে আমাদের সরকার', তাঁদের লড়াইকে স্যালুট জানিয়ে টুইট মমতার

 উল্লেখ্য, ২৭ এপ্রিল রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতর ও জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের পক্ষ থেকে একটি নির্দেশিকা জারি করা হয়েছিল। সেখানে বলা হয়, করোনা মোকাবিলায় কাজ করার জন্য জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের অধীনে থাকা রাজ্যের পৌরসভার স্বাস্থ্যকর্মীদের ইনসেনটিভ বা উৎসাহ ভাতা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার।  বেতন বাদে এপ্রিল ও মে মাসে তাঁদের ১০০০ টাকা করে ইনসেনটিভ দেওয়া হবে। এতে রাজ্যের বিভিন্ন পৌরসভার ৬৩৩৩ জন স্বাস্থ্যকর্মী উপকৃত হবেন। এই ইনসেনটিভ দেওয়ার জন্য রাজ্য সরকার ১ কোটি ২৬ লক্ষ ৬৬ হাজার টাকা বরাদ্দও করা হয়েছে।
 

 

 

কলকাতা মেডিক্যালের ভিতরের রাস্তায় অবহেলায় মৃত্যু এক বৃদ্ধের, করোনা আতঙ্কে দেহ ছুঁলেন না কেউ

অস্ত্রোপচারের পর রোগীর রিপোর্ট পজিটিভ, করোনা আক্রান্ত মুকুন্দপুর আমরির এক চিকিৎসক ও নার্স

কোভিড হাসপাতালে স্বাভাবিক মৃত্য়ুতেও পরিবার চাইলে সৎকার করবে কলকাতা পৌরসভা, জানালেন ফিরহাদ

করোনা আক্রান্ত প্রাণ হারালেন এবার রাজ্যের এক আইনজীবী, এদিকে আইসোলেশনে তাঁর স্ত্রী