করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্য়ু না হলেও পরিবার চাইলে প্রয়োজনে সৎকার করবে কলকাতা পৌরসভা। করোনা আক্রান্ত নন অথচ কোভিড হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে তাঁর৷ করোনা আতঙ্কে পরিবার যদি বাড়িতে দেহ নিতে না চায়, সেক্ষেত্রে যাবতীয় দায়িত্ব নেবে পৌরসভা। এমনটাই জানালেন কলকাতা পৌরসভার  প্রশাসকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম৷

আরও পড়ুন, সল্টলেক সেক্টর ফাইভের বহুতলে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, ঘটনাস্থলে উপস্থিত দমকলের ১০ টি ইঞ্জিন


শহরে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া ও আক্রান্ত হয়ে মৃত্য়ুর সংখ্য়া ক্রমশ বেড়ে চলেছে। যার জেরে এই মুহূর্তে আতঙ্কিত শহরবাসী। অনেকসময় এমন ঘটনা উঠে আসছে প্রিয় জনের মৃত্য়ুতে, করোনা সংক্রমণের ভয়ে অনেক পরিবার হাসপাতাল থেকে মৃত দেহ নিতে চাইছে না।  সেক্ষেত্রে ওই পরিবার যদি পৌরসভাকে জানায় বা ইচ্ছে প্রকাশ করে সেক্ষেত্রে প্রয়োজনে সৎকার করবে কলকাতা পৌরসভা। স্থানীয় কোনও শ্মশানেই হবে সৎকার৷ শনিবার কলকাতা পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন, কোভিড পজিটিভ হয়ে মৃত্য়ু প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবনের

 
শনিবার বৈঠক শেষে কলকাতা পৌরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন, শহরের কোভিড হাসপাতালগুলিতে করোনা আক্রান্ত নন এমন রোগীও ভর্তি রয়েছেন। সেক্ষেত্রে সংক্রমণে আক্রান্ত নন অথচ কোভিড হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে তাঁর৷ সংক্রমিত হবার ভয়ে পরিবার দেহ বাড়ি নিতে চাইছে না৷ সেক্ষেত্রে এবার পরিবারের থেকে অনুমতি নিয়ে তাঁর সৎকার করবে কলকাতা পৌরসভার কর্মীরাই।  

 

আরও পড়ুন, কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় খুলতেই ১ মাসের মধ্যে ফাইনাল সেমিস্টার, স্বাস্থ্য়বিধি মেনেই পরীক্ষা হোম সেন্টারে

 

 

'যোদ্ধারা সমরে-করোনা দূরে', ফের সচেতনতামূলক পথচিত্র আঁকল বেলেঘাটা ৩৩ পল্লী

বেহালা হাসপাতালের প্রসুতির শরীরে মিলল এবার করোনার জীবাণু, কেপিসি-র ৩ রোগীর রিপোর্টও পজিটিভ

রোগী ফেলে পালাতে পারল না অ্যাম্বুল্যান্স, পিপিই পরা স্বাস্থ্য়কর্মীদেরকে তীব্র প্রতিবাদ নাকতলাবাসীর