'নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিনকে জাতীয় ছুটি হিসেবে ঘোষণা করা হোক' । এমনটাই দাবি জানিয়ে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি লিখে  পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে শুধুই ছুটির দিন নয়, রয়েছে আরও একটি বড়সড় আবেদন। 
 

আরও পড়ুন, ছট পুজোর জন্য কৃত্রিম জলাশয় দেখতে শহরে ফিরহাদ, থাকছে বায়ো টয়লেট-চেঞ্জিং রুমের ব্যবস্থা

 

 


 জাতীয় জুটি হিসেবে ঘোষণার দাবি

প্রসঙ্গত, নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বোসের জন্মদিন ২৩ জানুয়ারি ১৮৯৭ সাল। প্রধানমন্ত্রীকে পাঠানো চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন প্রতিবছর তার জন্মদিন গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে গোটা দেশজুড়ে পালন করা হয় তবে আমাদের দীর্ঘদিনের দাবি এই দিনটি জাতীয় ছুটি হিসেবে পালন করা হোক। তবে বাংলায় শুধু মাত্র মমতার সরকারই নয়, এর আগে  একাধিক বাম রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিনকে জাতীয় জুটি হিসেবে ঘোষণার দাবি জানানো হয়েছে। কিন্তু সে দাবি ওঠা সত্ত্বেও আলোকপাত করা হয়নি। যদিও উল্লেখ্য, চলতি বছরের গোড়ায় নেতাজীর ১২৩ তম জন্মদিনে ছুটি ঘোষণা করে ঝাড়খন্ড সরকার।  

 

 

আরও পড়ুন, 'সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে প্রাপ্য সম্মান দেয়নি রাজ্য সরকার', বিস্ফোরক অধীর  

নেতাজির অন্তর্ধান রহস্যের উন্মোচন 

অপরদিকে, তবে প্রধান মোদীকে পাঠানো চিঠিতে  কেবলমাত্র নেতাজি জন্ম দিবসকে জাতীয় ছুটি হিসেবে ঘোষণার দাবি জানিয়েই থেমে থাকেননি মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি নেতাজির অন্তর্ধান রহস্যের উন্মোচন করার বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারকে আরও পদক্ষেপ গ্রহণ করার আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও এর আগে ক্ষোভ প্রকাশ করে মমতা জানিয়েছিলেন  যে, 'নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বোসকে দেশের জাতীয় স্তরের নেতা বলে মনে করে না বিজেপি', তাই তাঁর জন্মদিনকে জাতীয় ছুটি ঘোষণা করেনি। তবে তার পরে গঙ্গার উপর দিয়ে অনেক জল বয়ে গেছে। এখন বছর ঘুরলেই বিধানসভা নির্বাচন। এমন মুহূর্তে বাঙালি তথা দেশবাসীর স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে কী সিদ্ধান্ত জানাবে মোদী সরকার, তার অপেক্ষায় রয়েছে সবাই।