বাগুইআটির তরুণী খুনে নতুন মোড়। অবশেষে পুলিশের জালে বাগুইআটির বার-সিঙ্গার খুনের প্রধান অভিযুক্ত। পুলিশি সূত্রে খবর, ধৃত যুবক পেশায় গাড়িচালক। অপরদিকে সন্দেহভাজনের তালিকার ভিত্তিতে অমিতকে গ্রেফতার করল পুলিশ।

 

 


প্রসঙ্গত, বাগুইআটির এলাকার ইস্ট মল রোডের বন্ধ ঘরের ভিতর থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছিল এলাকায়। কিন্তু কোথা থেকে পচা দুর্গন্ধ আসছিল। তার ঠিকভাবে বুঝতে পারছিলেন না স্থানীয় বাসিন্দারা। অবশেষে সেই দুর্গন্ধের উৎস খুঁজতে গিয়ে বন্ধ ঘর থেকে এক তরুণীর নিথর দেহ উদ্ধার করল পুলিশ। ওই ঘর ভাড়া নিয়ে থাকতেন বার সিঙ্গার সুইটি এবং তাঁর সঙ্গী। সুইটি দেহ উদ্ধারের পর রহস্যজনকভাবে বেপাত্তা হয়ে যায় সঙ্গী সৌরভ চক্রবর্তী। 

আরও পড়ুন, আজ ছুটি সৌরভের, মহারাজের বাড়ির সামনে উপচে পড়ছে অনুগামীদের ভীড়

 

না। তাঁদের সম্পর্ক ভালই ছিল বলে জানিয়েছেন প্রতিবেশীরা। এই অবস্থায় বেশ কয়েকদিন ধরে ওই এলাকায় পচা দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছিল।  অবশেষে, ইস্ট মল রোড এলাকায় ওই বাড়ির দরজা ভেঙে দেখা ওই তরুণীর নিথর দেহ পড়ে রয়েছে। খবর পেয়ে কিছুক্ষণের মধ্য়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বাগুআইটি থানার পুলিশ।  শ্বাসরোধ করে ওই তরুণীকে খুন করা হয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান করছে পুলিশ। তাঁর সঙ্গী সৌরভ বেপাত্তা থাকায় সেই খুন করেছে বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান করে পুলিশ।

আরও পড়ুন, শিক্ষকদের কোভিডের টিকা দিয়েই খুলবে স্কুল, কী বলছেন শিক্ষামন্ত্রী

 

 এই ঘটনার কথা স্বীকার করে খড়দার এক ব্য়াক্তিকে হোয়াটস অ্যাপ করেই শেষ রক্ষা হয়নি আরও অভিযুক্তের । মোবাইলের লোকেশন দেখে খড়দার একটি ডেরা থেকে গ্রেফতার করা হয় সৌরভকে। তবে কিন্তু কী কারনে খুন, প্রেম নাকি পরকীয়া,   রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা করছে পুলিশ।