বছর ঘুরে আবার সময় এল ফিরে। এক বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে আবার আসছে মা। প্রকৃতিও জানান দিচ্ছে মা আসছে। শরতের নীল মেঘ আর শিউলির গন্ধ যেন তারই আগমণ বার্তা দিচ্ছে। সেই সঙ্গে শুরু হয়ে গিয়েছে তার প্রস্তুতিও। ওলিতে-গোলিতে শুরু হয়ে গিয়েছে প্যন্ডাল। কুমার টুলিতে প্রতিমা তৈরির কাজও প্রায় শেষ। সেই সঙ্গে সমস্ত পুজো কমিটির থিম পুজোর প্রস্তুতিও এখন তুঙ্গে। 

দেখে নিন-নাম লেখাননি এখনও, দেরি না করে অংশ নিন এশিয়ানেট নিউজ শারদ সম্মান ২০১৯-এ

পরিবেশ দূষণে প্লাস্টিকের ভূমিকা সম্পর্কে কমবেশি সকলেই অবগত। কিন্তু অবগত হওয়া সত্ত্বেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারেন কজন। এ ব্যাপারে এবার আকর্ষণীয় উদ্যোগ নিয়েছে সল্টলেক বিবি ব্লকের পূজো কমিটি। প্লাস্টিক পরিশোধিত হয়ে তৈরি খেলনাই এইবার তাদের পূজোর মূল ইউএসপি। 

আরও পড়ুন- স্বর্ণরূপিনী মা, সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের নতুন চমক

 "খেলনা নয় ফেলনা" এই মন্ত্রেই পূজো মাতাতে চলেছে সল্টলেকের প্রাচীনতম এই বিবি ব্লকের পূজো উদ্যোক্তারা। এই বছর তাদের পূজো পদার্পন করছে ৪৬ তম বছরে। এই বছর তাদের পূজোর বাজেট ১৬ লক্ষ টাকা। এলাকার সবচেয়ে প্রাচীন পূজো হিসেবে যে তাদের দিকে সকলের নজর থাকছে সে বিষয়ে ভালো ভাবেই ওয়াকিবহাল  পূজোর উদ্যোক্তারা। অবশ্য এই ব্যাপারটিকে চাপ হিসেবে নিতে নারাজ তারা, বরং তারা প্রত্যাশা পুরণ করতে বদ্ধপরিকর। দ্রুতলয়ে সেজে উঠছে তাদের মণ্ডপ। একমাস আগে থেকে প্রায় ২০ জন শিল্পীর পরিশ্রমে সেজে উঠছে বিবি ব্লকের এই পূজো আর উদ্যোক্তারা আশা করছেন মহালয়ার আগেই তাদের মণ্ডপ সজ্জার কাজ সম্পূর্ন হয়ে যাবে। যদিও প্রতিমার বিষয়টিকে সিক্রেট হিসেবেই রাখতে চাইছেন তারা।