লকডাউনের পরিস্থিতিতে সাতসকালেই বাজার থেকে উধাও রুই-কাতলা-বাটা। এই অবস্থায় শহরবাসীর কাছে মাছ পৌঁছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে রাজ্য মৎস্য উন্নয়ন নিগম। তবে কলকাতা ছাড়াও শনিবার থেকেই জেলায় জেলায়ও নিগমের বিভিন্ন জলাশয়ের মাছ বিক্রি শুরু হয়েছে।

আরও পড়ুন, নিজেদের জীবন বিপন্ন করে সাধারণের পাশে কলকাতা পুলিশ, দেখুন সেরা ১২টি ছবি

ইতিমধ্য়েই নিগমের কর্তারা জানিয়েছেন, লকডাউনের সময়ে শহর ও শহরতলির বিভিন্ন জায়গায় মাছ বিক্রি করবে রাজ্য মৎস্য উন্নয়ন নিগম। বাজারগুলিতেও নিগমের তরফে মাছ বিক্রি করা হবে। পাশাপাশি এসএফডিসি অর্থাৎ নিগমের অ্যাপের মাধ্যমেও ঘরে বসে মাছ কেনা যাবে। রাজ্যের মৎস্যমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিংহ জানিয়েছেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে মানুষের কাছে মাছ পৌঁছে দিতে শনিবার থেকে শহরে দশটি গাড়ি চালু করা হয়েছে। নিগমের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সুব্রত মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, 'জলাশয়ের টাটকা রুই, কাতলা, মৃগেল, তেলাপিয়া, গ্রাস কার্প, চিংড়ি, ট্যাংরা আমরা ন্যায্য মূল্যে বিক্রি করছি। রবিবার থেকে বালিগঞ্জ, কালীঘাট, নিউ টাউনে ওই পরিষেবা মিলবে। লকডাউনের পরিস্থিতিতে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পরিষেবা চালু রেখে শহরবাসীদের দরজায় দরজায় ন্যায্য মূল্যে মাছ পৌঁছে দেওয়া হবে।'

আরও পড়ুন, এবার করোনা আক্রান্ত উত্তরবঙ্গে, রাজ্য়ে সংখ্যা বেড়ে ১৮

 নিগম সূত্রের খবর, নলবনে নিগমের বিশাল জলাশয় থেকে শনিবার ভোরে প্রায় তিনশো কেজি মাছ ধরা হয়েছে। ওই মাছ রবিবার সকালে দশটি গাড়িতে চাপিয়ে সল্টলেকের বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করা হয়েছে। যোধপুর পার্ক, টালিগঞ্জ, যাদবপুরের মতো জায়গায় মাছ বিক্রি হয়েছে। নবান্নেও একটি মাছের গাড়ি পাঠানো হয়েছে।  আগামী সোমবার থেকে আরও দশটি গাড়ি চলবে।

আরও পড়ুন, রাজ্য়ের প্রথম করোনা আক্রান্তের রিপোর্ট নেগেটিভ, ক্রমশ সুস্থ আমলা পুত্র