বিজেপির ফেক নিউজ এর বিরুদ্ধে অভিযোগে বারবার আওয়াজ তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। এবার তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী তথা রাজ্যের মন্ত্রী শশী পাঁজা জানালেন, উন্নয়নকে হাতিয়ার করে আগামী দিনে ফেক নিউজের বিরুদ্ধে লড়াই করবেন তাঁরা। শেষ ন'বছরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর নেতৃত্বে রাজ্যে কিভাবে উন্নয়ন হয়েছে তার খতিয়ান তুলে ধরে এই কথা বললেন রাজ্যের নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী শশী পাঁজা। তৃণমূল নেতৃত্বের বক্তব্য জেলায় জেলায় ব্লকে ব্লকে এই ভাবে উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরা হবে। 

আরও পড়ুন: নির্বাচনের আগেই কি জেলে যাবেন মুকুল রায়, ভোটযুদ্ধে জিততে কী কৌশল নিচ্ছে বিজেপি

এদিন রাজ্যে নারী এবং শিশুদের ক্ষেত্রে কি কি উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে তার খতিয়ান তুলে ধরেন শশী পাঁজা। তিনি জানান, বাংলার নারীদের কথা মাথায় রেখে অনেক কাজ করেছে এই সরকার। বাংলায় যে কাজ হয়েছে সেটা দেশের আর কোথাও হয়নি।

কোন কোন কাজের কথা উল্লেখ করলেন শশী পাঁজা

• স্বাস্থ্য সাথী - ১৪২ লাখ পরিবার এর মধ্যে দিয়ে উপকৃত হচ্ছে। 
• রুপশ্রী - ৫ লাখ মেয়ে উপকৃত হয়েছে। ১,৪০০ কোটি টাকা খরচ করে এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে।
• মহিলা পরিচালিত থানা - বর্তমানে ৪৬ টি থানা আছে, বাম আমলে একটিও ছিল না। 
• প্রান্তিক এলাকার অন্তঃস্বত্তা মহিলাদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, যেখানে সন্তান প্রসবের জন্য আগাম ভর্তি হতে পারবেন মহিলারা। যেখানে প্রতি মাসে ৫০-৬০ জন মহিলা সন্তানের জন্ম দিচ্ছেন। 
• মাদার অ্যান্ড চাইল্ড হাব - রাজ্যে একাধিক জায়গায় তৈরি করা হয়েছে মাদার এন্ড চাইল্ড হাব।
• মহিলাদের মাতৃত্বকালীন ছুটি বাড়িয়ে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 
• একশো দিনের কাজে ১ কোটি ২৭ লাখ মহিলা যুক্ত আছেন এটা ভারতের মধ্যে রেকর্ড। 
• আইসিডিএস কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি হয়েছে নিয়মিত। 
• কন্যাশ্রী - ৯ হাজার ৩৮৯ কোটি টাকা বরাদ্দ, ৬৭ লাখ ছাত্রী এই সুবিধা পেয়েছে। 
• ডায়মন্ড হারবারে মহিলা বিশ্ব বিদ্যালয় তৈরি হয়েছে। একাধিক জায়গায় প্রস্তাবিত রয়েছে মহিলা বিশ্ববিদ্যালয়। মহিলাদের জন্য স্কুলে বিকল্প শৌচালয় তৈরি করা হয়েছে। 
• খাদ্য সাথী - মহিলাদের সম্মান জানিয়ে তাদের নামে এই কর্ড তৈরি করে দেওয়া হয়। 
• বয়স্ক মহিলাদের পেনশন - বয়স্ক মহিলাদের জন্য পেনশন এর ব্যবস্থা করেছে রাজ্য সরকার

এছাড়াও আরো একাধিক প্রকল্প আছে রাজ্য সরকার এর। যার মধ্যে দিয়ে মানুষের কাছে বিশেষত মহিলাদের কাছে পৌঁছে যাওয়ার চেষ্টা করছে রাজ্য সরকার। একই সঙ্গে রাজ্যে মহিলাদের উপরে নির্যাতন হচ্ছে এই অভিযোগের পরিপেক্ষিতে শশী পাঁজা জানান, যে কোনও অভিযোগই রাজ্যে তৎপরতার সঙ্গে কাজ হয়, বাংলার মহিলারা সেটা জানে। গোটা দেশে যে ভাবে মহিলাদের উপর অত্যাচার হয়। সেই তালিকায় বাংলার নাম নেই।