রাজনীতি থেকে অপরাধ, মানুষের সুখ,দুঃখের খবর থেকে আরও রকমারি ঘটনা- সময়ের সঙ্গে ঘটে চলে একের পর এক নিউজ। তার মধ্য়ে থেকেও বেছে আনা কিছু খবর। সময়ে সময়ে যার আপডেট পাবেন আপনি। তাই কলকাতাকে জানতে খবরে থাকুন,খবর রাখুন।

১) লকডাউন ভেঙে সোনারপুরের হোমে এইচআইভি আক্রান্ত শিশুদের প্রকাশ্য়ে আনায় তৃণমূলের সাংসদ মিমি চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন দিলীপ ঘোষ। বিজেপি রাজ্য় সভাপতি বলেন,প্রচারের লালসা থেকেই এই ধরনের নিকৃষ্ট কাজ করছে তৃণমূল। এইচআইভি পজিটিভ হওয়ায় এমনিতেই করোনা পরিস্থিতিতে ওই শিশুদের সংক্রমণের সম্ভাবনা অনেক বেশি। সেইসব দিকে নজর না দিয়ে কেবল প্রচার পেতেই এই ধরনের কাজ করছেন তৃণমূলের সাংসদরা। প্রচারের লালসা, 'এইচআইভি হোম কাণ্ডে' মিমি চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে তোপ দিলীপের.

2) বাবা করোনায়  আক্রান্ত হওয়ায় হোম কোয়ারান্টাইনে যেতে হল মা ও বোনকে। পরিবার নিয়ে চিন্তায় টলিউড অভিনেত্রী তথা তৃণমূলের সাংসদ। মূলত, করোনা রোগীর সংস্পর্শে থাকায় এই দুজনকেই আলাদা রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে,  হাসপাতালে নয় বাড়িতেই কোয়ারান্টাইনে থাকবেন ওই দুজন।করোনায় আক্রান্ত টলিউডের অভিনেত্রী-সাংসদের বাবা, কোয়ারান্টাইনে গেলেন মা ও বোন.

3) রাজ্য়ের খাতায় এখনও দেড়শো পেরোলো না। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য় মন্ত্রকের বুলেটিন বলছে, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত রাজ্য়ে ২৩১ জন করোনা সংক্রমণের শিকার হয়েছেন। যদিও খুশির খবর, সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪২ জন। এখনও পর্যন্ত  রাজ্য়ে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৭।১৫০ পেরোলো না রাজ্য়, কেন্দ্রের খাতায় বাংলায় করোনা আক্রান্ত ২৩১.
 

4) রাজ্য়ের করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে নতুন উদ্য়োগ নিল রাজ্য় নিয়ুক্ত করোনা সংক্রান্ত কমিটি। এবার থেকে করোনা পরীক্ষায় আনা হল নয়া পরিবর্তন।  নতুন নির্দেশিকা অনুসারে কোভিড আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা কারও উপসর্গ থাকা বা না থাক তাঁর করোনা পরীক্ষা করা আবশ্য়িক।  সেই সঙ্গে স্পর্শকাতর এলাকাতেও স্থানীয় প্রশাসনের পরামর্শ অনুসারে লালারসের নমুনা পরীক্ষা করতে বলা হয়েছে। করোনা পরীক্ষায় নয়া নির্দেশিকা রাজ্য়ের, ডাক্তারদের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ দেখছে বিজেপি.

5) 'ভালো করতে গিয়ে কালো'। লকডাউনে বিশেষ শিশুদের পাশে থাকতে গিয়ে বিতর্কে তৃণমূলের সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ও বারুইপুরের পুলিশ সুপার রশিদ মুনির খান।  কেন লকডাউন না মেনে উপেক্ষা করা হল সুপ্রিম কোর্টের নিষেধাজ্ঞা প্রশ্ন উঠেছে তা নিয়েও। লকডাউন নিয়মকে তুড়ি মেরে এইচআইভি শিশুদের নিয়ে অনুষ্ঠান, বিতর্কে সাংসদ মিমি ও এসপি.

6) সব জায়গায় সম্ভব নয় করোনার চিকিৎসা। দেশে দ্রুত হারে করোনা  রোগীর সংখ্য়া বাড়তে দেখে কোভিড রোগীর জন্য় বিশেষ হাসপাতালের পরামর্শ দিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য় মন্ত্রক। নতুন নির্দেশ অনুসারে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য তিন রকমের স্বাস্থ্যকেন্দ্র প্রস্তুত করতে বলা হয়েছে। এগুলি হল কোভিড কেয়ার, কোভিড হেলথকেয়ার এবং কোভিড হাসপাতাল। করোনা রোগীর জন্য় তিন ধরনের ব্য়বস্থা, কী বলছে কেন্দ্রের নির্দেশিকা.

7) করোনায় মৃত ভেবে পরিবারের কাছে অন্য দেহ তুলে দেওয়ার অভিযোগ উঠল হাসপতালের বিরুদ্ধে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শেষপর্যন্ত নামতে হল তৃণমূলের চিকিৎসক নেতাকে। যদিও আরজিকর মেডিক্যাল কলেজের বিরুদ্ধে এর উপযুক্ত ব্য়বস্থা চেয়ে চিঠি লিখেছে মৃতের পরিবার।  করোনা রোগীর দেহ ভেবে অন্যের অন্ত্যেষ্টি,গোল বাধল আরজিকর-এ.

8) দ্রুত গতিতে বাড়ছে রাজ্য়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। তেমনই হিসেব দিচ্ছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য় মন্ত্রক। কেন্দ্রের বুধবারের রিপোর্ট বলছে,রাজ্য়ে  করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে গেছে। তবে আশার খবর এরই মধ্য়ে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৩৭ জন। রাজ্য়ে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ৭। রাজ্য়ে ২০০ ছাড়িয়ে গেছে আক্রান্তের সংখ্য়া, হিসেব দিল কেন্দ্র.

9) এত ভঙ্গ বঙ্গদেশ, তবু রঙ্গে  ভরা।  এখানে সবজির দাম কমছে। কিন্তু মদের দাম বেড়ে চলেছে হু-হু করে। তিন.থেকে চারগুণ দামে কালোবাজারি হচ্ছে বাংলা মদের! আর দ্বিগুণ দামে বিকোচ্ছে রয়ালস্টাগ আর রাম!.লকডাউনের বাজারে হু-হু করে বাড়ছে 'বাংলার' দা

10) লকডাউনে কাজ হারানো যৌনকর্মী, রূপান্তরকামীদের মতো মানুষের পাশে দাঁড়ালেন রাজ্য়ের মুখ্যমন্ত্রী মমতা.বন্দ্যোপাধ্যায়।  মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণায় হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছেন  যৌনকর্মী এবং রূপান্তরকামীরা। ইতিমধ্য়েই তাঁদের হাতে চাল, ডাল, আলু, আটা, মুড়ি, বিস্কুট, সাবান, তুলে দেওয়া হয়েছে।.লকডাউনে যৌনকর্মী-রূপান্তরকামীদের পাশে দাঁড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী, পৌঁছানো হল পর্যাপ্ত খাবার...