কলকাতার নামী বেসরকারি স্কুলের পড়ুয়াদের একাংশ যে ক্রমেই মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছে, আরও একবার তার প্রমাণ পেল পুলিশ। কলকাতার বেনিয়াপুকুর এলাকা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদক-সহ দুই বিক্রেতাকে গ্রেফতার করা হলো। জেরায় তারা স্বীকার করেছে, পার্ক সার্কাস এলাকার কয়েকটি নামী বেসরকারি স্কুলের পড়ুয়ারাই তাদের মূল ক্রেতা। 

আরও পড়ুন- তান্ত্রিকের ঘরে উদ্ধার রক্তাক্ত দেহ! মৃতের স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ার অভিযোগ

পুলিশ জানিয়েছে, পার্ক সার্কাস এলাকায় বেশ কয়েকটি নামী ইংরেজি মাধ্যম স্কুল রয়েছে। সেখানে উচ্চবিত্ত পরিবারের বহু ছাত্রছাত্রীই আসে। মূলত তাদেরকেই টার্গেট করছে এই মাদক কারবারিরা। শুক্রবার রাতে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পার্কা সার্কাস এলাকা থেকে দুই মাদক কারবারীকে গ্রেফতার করে কলকাতা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল। ধৃত ওই দু' জনই পার্ক সার্কাস এলাকায় ব্রাউন সুগার বিক্রি করছিল। পার্ক সার্কাসে ডন বসকো, মহাদেবী বিড়লার মতো নামী স্কুলগুলির পড়ুয়াদেরই টার্গেট করত তারা। ধৃতদের কাথ থেকে পঞ্চাশ হাজা টাকা মূল্যের ব্রাউন সুগার উদ্ধার হয়েছে। দুই মাদক পাচারকারীর বিরুদ্ধে বেনিয়াপুকুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ধৃতদের শনিবার আদালতে তোলা হবে। 


পুলিশ জানিয়েছে, ধৃত দু' জনের নাম আরশাদ হোসেন এবং আসগর হোসেন। ধৃতরা কবুল করেছে, মূলত নামী স্কুলের ছাত্র- ছাত্রীরাইন তাদের মূল ক্রেতা ছিল। ছাত্রছাত্রীদের মাদকের গ্রাস থেকে বের করে আনতে তৎপর হয়েছে। সূত্রের খবর, ধৃত দুই মাদক বিক্রেতার থেকে তাদের ক্রেতা কোন কোন ছাত্রছাত্রীরা ছিল, তা জানার চেষ্টা করবে পুলিশ। এর পরে স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে সেই ছাত্রছাত্রীদের কাউন্সেলিংয়ের ব্যবস্থা করা হবে পুলিশের তরফে।

আরও পড়ুন- সোনা-নগদ লুটে নেতৃত্বে কলকাতা পুলিশের এসআই! গোয়েন্দাদের জালে ৩

পার্ক স্ট্রিট এবং সংলগ্ন এলাকায় মাদক কারবারীদের রমরমা আটকানো এখন পুলিশের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ। স্কুল পড়ুয়াদের পাশাপাশি নিয়মিত ওই এলাকার পানশালাগুলিতে তরুণ প্রজন্মের যে ছেলেমেয়েরা নিয়মিত যাতায়াত করেন, তাঁদেরকেও টার্গেট করছে এই মাদক কারবারীরা। প্রায় এক মাস আগে পার্ক স্ট্রিট থেকে আরও দুই মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। তাদের কাছ থেকেও উদ্ধার হয়েছিল ব্রাউন সুগার। সেক্ষেত্রেও ধৃতরা স্বীকার করেছিল, স্কুল পড়ুয়া এবং নাইট ক্লাবে যাতায়াতকারী অল্প বয়সিদেরই টার্গেট করত তারা।