উল্টোডাঙার ঘটনায় অল্পের জন্যে রক্ষা পেয়ে গিয়েছে শহরবাসী। ২০১৩ সালের ৩ মার্চের স্মৃতি ফিরে এসেছে এক লহমায়। সেদিন যে স্তম্ভের কারণে জন্যে ট্রাক ব্রিজ ভেঙে খালে পড়ে গিয়েছিল, এদিনও সেই স্তম্ভেই ফাটল দেখে তৎপরতা নিয়েছে কেএমডিএ। তবে এদিন পরিদর্শনের পর দেখা গিয়েছে একটি নয় একাধিক ফাটল রয়েছে এই ব্রিজে।

গত কাল রাতে কেএমডিএ-র  পরিদর্শকদল ব্রিজ পরিদর্শনে এসে এই ফাটল দেখতে পান। ফাটলটি ছিল বিমানবন্দর-সল্টলেক উড়ালপুলের সেই পুরনো স্তম্ভটিতেই। বলা চলে, তাদের তৎপরতাতেই এই দিন বিরাট কোনও দুর্ঘটনা আটকানো সম্ভব হয়েছিল। বিপদ বুঝেই এই পরিদর্শক কমিটি কলকাতা পুলিশ ও বিধাননগর কমিশনারেটকে সতর্ক করে। সঙ্গে সঙ্গেই শুরু হয় অ্যাকশান। ব্রিজের ওপর সব রকম গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। গার্ডরেল লাগিয়ে দেয় ব্রিজের মুখে।সূত্রে খবর‌, আগামী তিন দিন এই ব্রিজ বন্ধ থাকবে। কাল পরিদর্শনে যাবেন কেএমডিএ ইঞ্জিনিয়ররা। যাবেন নির্মাণকারী সংস্থার প্রতিনিধিরাও‌। তাদের কাছ থেকে জবাবদিহিও চাওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ ফিরল ৬ বছর আগের আতঙ্কের স্মৃতি, ব্রিজের ভাঙন বাঁচাল পরিদর্শকদের তৎপরতা

সূত্রের খবর, এই দিন বাঁচলেও, আগেও ঘটতে পারত দুর্ঘটনা, কেননা একাধিক ফাটল রয়েছে এই উড়ালপুলের স্তম্ভ গুলিতে। বলাই বাহুল্য এই প্রথম পরিদর্শন নয় অনেক আগেই এই ফাটলগুলির খোঁজ পেয়েছিলেন পুরসভার পরিদর্শকরা। সেই মতো তৎপরতা নেওয়া হয়। স্থির হয়, ফাটলের বৃদ্ধির পরিমাপ খতিয়ে দেখবে কেএমডিএ তবে দিনকে দিন ফাটল বেড়ে চললেও কেন গা করেনি পুরসভা? কেন অনেক আগেই শুরু হয়নি মেরামতির কাজ? প্রশ্ন থাকছে।