শহরের আকাশ শুক্রবার সারাদিন আংশিক মেঘলা থাকবে। এদিকে আমফান দুর্যোগের রেশ কাটতে না কাটতেই ফের শুরু ভয়ঙ্কর ঝড়-বৃষ্টি শুরু বুধবার সন্ধে থেকে। কলকাতা ও অন্যান্য জেলায় ঝড় ও  টানা বৃষ্টি চলছে৷ হাওয়া অফিস জানিয়েছে,আগামী চার দিন ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে গোটা রাজ্যে জুড়েই।   আগামী ৩৬ ঘণ্টায় কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে ফের ঝড়ের সম্ভাবনা। তবে টানা ঝড়-বৃষ্টির জেরে  তাপমাত্রা নামল স্বাভাবিকের থেকে আট ডিগ্রি নীচে। কলকাতার এই মুহূর্তে তাপমাত্রা ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আরও পড়ুন, মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলেকে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ বাবা-মা ও ভাইয়ের বিরুদ্ধে, উত্তপ্ত গড়ফা


আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী বৃষ্টি চলবে কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগণা,হাওড়া, হুগলী, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, পূ্র্ব-পশ্চিম মেদিনীপুরে। উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ার,কোচবিহারে আজ ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা। রবিবার থেকে উত্তরবঙ্গের পাঁচ জেলা দার্জিলিং কালিম্পং আলিপুরদুয়ার জলপাইগুড়ি কোচবিহারে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা। সঙ্গে থাকবে ঝোড়ো হাওয়া। যার গতিবেগ থাকবে ৪০ থেকে ৫০ কিমি প্রতি ঘন্টা। উত্তরবঙ্গে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। বর্জ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে  দক্ষিণবঙ্গেও। বুধবারের ঝড়-বৃষ্টির জেরে কলকাতার তাপমাত্রা অনেকটাই নেমে গিয়েছে। উল্লেখ্য়, হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, বুধবার ধাপায়  বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৬৫ মিলিমিটার, নিউ মার্কেটে ৫৯ মিলিমিটার, ঠনঠনিয়া কালীবাড়ি সংলগ্ন অঞ্চলে ৫৮ মিলিমিটার, তোপসিয়ায় ৪২ মিলিমিটার,  বালিগঞ্জে ৩৫ মিলিমিটার, পামার বাজারে ৩৮ মিলিমিটার, উল্টোডাঙায় ৩০ মিলিমিটার, কালীঘাটে ৩৫ মিলিমিটার,  জোকায় ৪৩ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

আরও পড়ুন, বৃহস্পতিবার কলকাতা মেট্রোর ট্রায়াল রান শুরু, সংক্রমণ রুখতে চালু শুধুই স্মার্ট কার্ড


হাওয়া অফিস জানিয়েছে,  কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২২.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে পাঁচ ডিগ্রি কম।  এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৬.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে আট ডিগ্রি কম। শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৯৩ শতাংশ। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ৭৮ শতাংশ।
গতকাল  বৃহস্পতিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২২.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে পাঁচ ডিগ্রি কম।  এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৩.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম। টানা ঝড়-বৃষ্টির জেরে কলকাতার তাপমাত্রা নেমে গিয়েছে অনেকটাই। স্ট্রং সাউদার্লিতে ভর করে প্রচুর জলীয়বাষ্প ডুকছে বঙ্গোপসাগর থেকে।পূর্ব-পশ্চিম অক্ষরেখা রয়েছে উত্তর প্রদেশ থেকে নাগাল্যান্ড পর্যন্ত বিস্তৃত। এই পূর্ব-পশ্চিম অক্ষরেখা বিহার বাংলা ও আসাম এর উপর দিয়ে গেছে। এর টানেও প্রচুর জলীয়বাষ্প ঢুকছে। 

 

করোনা আক্রান্ত রাজ্য়ের তৃণমূল বিধায়ক, কালীঘাটের ফ্ল্য়াট সিল করে বসল পুলিশি প্রহরা

করোনা আক্রান্ত বেলেঘাটা থানার আধিকারিক সহ পরিবারের ৬ সদস্য, আইডিতে এখন চিকিৎসধীন

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসিস্ট্যান্ট

কোভিড পজিটিভ হয়ে মৃত্য়ু প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবনের