বেধে দেওয়া মূল্য়ের প্রায় দ্বিগুনের বেশি ভাড়া নিতে গিয়ে  ধরা পড়লেন শহরের একাধিক অটো চালক। যাত্রী সেজে বাড়তি ভাড়া নেওয়া অটো চালকদের ধরলেন পরিবহণ দফতরের আধিকারিকরা।  রাজ্য পরিবহন দফতর সূত্রে খবর আগামীকাল সকাল থেকে লাগাতার অভিযান চালাবেন তারা।   

আরও পড়ুন, করোনার সংক্রমণ এবার লালবাজারে, গড়ফা থানায় আক্রান্ত আরও ২


 গত  ১৮মে রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নেয় ২৭মে থেকে কলকাতায় চলবে অটো। ২ জন যাত্রী নিয়ে অটো চলাচল করবে। মাস্ক বা ফেস শিল্ড বাধ্যতামূলক করা হয় অটোতে। যদিও বুধবার সকাল থেকে ট্রাফিক পুলিশের কাছে সারকুলার না এসে পৌছনোয় অটো চালানো শুরু হতে দেরি হয়। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে অভিযোগ জমা পড়তে শুরু করে রাজ্য পরিবহণ দফতরের কাছে যে শহরের একাধিক জায়গায় অটো চালকরা বাড়তি টাকা দাবি করছেন।  অভিযোগ পেয়েই অভিযানে নামার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় রাজ্য পরিবহন দফতরের তরফ থেকে।

আরও পড়ুন, কলকাতায় করোনা আক্রান্ত আরও ১ সিআইএসএফ কর্মীর মৃত্যু, চিন্তায় গার্ডেনরিচ শিপ বিল্ডার্স

পরিবহণ দফতরের টাস্ক ফোর্সের সদস্যরা যোগাযোগ করেন কলকাতা পুলিশের সঙ্গে। তার পরেই বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা অবধি অভিযানে নামেন পরিবহণ দফতরের ভিজিল্যান্স বিভাগের অফিসাররা। গড়িয়াহাট, উল্টোডাঙা সহ একাধিক জায়গায় পরিবহণ দফতরের অফিসাররা যাত্রী সেজে অটোয় উঠে বসেন। যে রুটে ভাড়া ছিল ১২ টাকা, সেখানে নেওয়া হচ্ছে ৩০ টাকা অবধি। ৯ টাকা যেখানে ভাড়া ছিল, সেখানে ভাড়া নেওয়া হচ্ছে ২০ টাকা। তারপরেই তাদের হাতেনাতে ধরা হয়। পরিবহণ দফতর সূত্রে খবর, সামাজিক বিধি মেনেই দু'জন যাত্রী নিয়ে অটো চালাতে হবে এমন কথা জানিয়েই রাস্তায় গাড়ি নামানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে। আপাতত শহরের ১২৫ রুটে চলছে অটো। তার মধ্যে ১০ থেকে ১২টি রুট থেকে অভিযোগ এসেছে। তবে  সমস্ত রুটকেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কোনও ভাড়া বৃদ্ধি না করা হয়। সেক্ষেত্রে এর পরেও নিয়ম না মেনে যারা বাড়তি ভাড়া নিচ্ছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

 

 

করোনা আক্রান্ত রাজ্য়ের তৃণমূল বিধায়ক, কালীঘাটের ফ্ল্য়াট সিল করে বসল পুলিশি প্রহরা

করোনা আক্রান্ত বেলেঘাটা থানার আধিকারিক সহ পরিবারের ৬ সদস্য, আইডিতে এখন চিকিৎসধীন

দেহ রাখার জায়গা না থাকায় ডিপ ফ্রিজ বসছে মেডিকেলের মর্গে, মৃতদেহ 'ম্যানেজমেন্ট'-এ নিয়োগ অ্যাসিস্ট্যান্ট

কোভিড পজিটিভ হয়ে মৃত্য়ু প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ হরিশঙ্কর বাসুদেবনের