বিয়ের ওয়েবসাইটেই প্রতারণার ফাঁদে পড়লেন মহিলা। দক্ষিণ কলকাতার বাসিন্দা মহিলা  ঘ্রুণাক্ষরেও টের পাননি যে, বিয়ের সাইটের বিজ্ঞাপনেই রয়েছে প্রতারণার ফাঁদ। অসুখের নাম করে মহিলার থেকে লক্ষাধিক টাকা ধার নিয়ে, শেষমেষ পলাতক হবু বর। এই ঘটনার পর,  দক্ষিণ কলকাতার নেতাজিনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই মহিলা। 

আরও পড়ুন, করোনা মোকাবিলায় উড়ান না পাওয়ার আশঙ্কা, যাদবপুর ছাড়লেন জাপানি পড়ুয়ারা


সূত্রের খবর, ওই মহিলা জানিয়েছেন, তাঁর স্বামী মারা গিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি নিঃসন্তান, তাই একাকীত্ব কাটাতে আবারও বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। বিয়ের একটি ওয়েব সাইটে তিনি বিজ্ঞাপণ দেন। এরপরই ঘটনার মোড় ঘোরে। বিয়ের ওই সাইটেই পরিচয় হয় তাঁর, বর্ধমানের এক যুবকের। কথায়-কথায় সম্পর্ক গভীর হতেই ওই যুবক তাঁকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। এরই মাঝে তাদের কলকাতায় দেখাও হয়। আর সেই সময়, বর্ধমানের ওই যুবক ভাবী বৌ থেকে মিথ্য়ে অসুখের গল্প শুনিয়ে প্রায় ১২,০০০ টাকা হাতিয়ে নেয়। তবে এখানেই শেষ নয় ওই মহিলার থেকে বর্ধমানের ওই যুবক দফায় দফায়  লক্ষাধিক টাকা নিয়ে নেয়।

আরও পড়ুন, আম্রমুকুল আর পলাশ জানান দিচ্ছে বসন্তের, দোল উৎসবে মাতবে এবার শহর ও শান্তিনিকেতন

টাকা ধার দেওয়ার অনেকদিন পর নানা কারণে দক্ষিণ কলকাতার ওই বাসিন্দা, তাঁর হবু বরের থেকে চাইতে থাকেন। এদিকে তাঁর হবু বর সুযোগ বুঝে ফোন বন্ধ করে দেন। শেষমেষ কোনও ভাবেই আর ওই যুবকের সঙ্গে যোগাযোগ না করতে পেরে তিনি দক্ষিণ কলকাতার নেতাজিনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পলাতক হবু বরের তথ্য় বলতে এটুকুই আছে, সে বর্ধমানের যুবক। মোবাইল ফোন ও ব্য়াঙ্ক অ্যাকাউন্টের সূত্র ধরে অভিযুক্তর তল্লাশি চালচ্ছে পুলিশ। তবে এখনও ওই যুবকের সন্ধান পায়নি পুলিশ। তবে ওই মহিলাকেও দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে এই ঘটনায়, বিয়ের ওয়েবসাইটে পাত্র-পাত্রীদের পরিচয় ও নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

আরও পড়ুন, প্রচুর জলীয়বাষ্প ঢুকছে রাজ্যে, আজ বিকেলে ফের বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি