সকালের জলখাবার হোক, লাঞ্চ অথবা ডিনার মধ্যবিত্ত বাঙালির খাবার পাতে ডিম দেখা যায়ই।  তবে ডিম খাবার সময় কখনও কি সবুজ রঙের কুসুম চোখে পড়েছে। ভাবছেন ঠাট্টা করছি। একদমই নয়! সবুজ রঙ এর ডিমের কুসুম নিয়ে তোলপাড় হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। চিরাচরিত কুসুমের রং হলুদ অথবা কমলা দেখতেই অভ্যস্থ সকলে। মাঝে আবার কালো মুরগির ডিমে কালো রং এর কুসুম মিলেছিল। তবে সবুজ রঙা কুসুম!

আরও পড়ুন- শিশুর চোখের ভিতরে আটকে জ্যান্ত গুবরে পোকা, ছবি দেখে হতবাক নেটিজেনরা

ঘটনাটি ঘটেছে কেরালার মালাপ্পুরামের একটি খামারে। এই বিরল ডিমের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে সেখান থেকেই। এই খামারে দেখা মিলেছে হলুদ নয় সবুজ রঙ এর কুসুমের। তাও আবার একটি নয়, একসঙ্গে সাত সাতটি মুরগি এমন বিরল ডিম পাড়ছে বলে জানা গিয়েছে। এমনকি ডিম রান্না করার পরেও কুসুমের রং সবুজই থাকছে। কী ভাবে সম্ভব হচ্ছে এটি! এই খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই শিয়াবুদ্দিনের খামারে প্রচুর মানুষ হাজির হয়েছেন এই ডিম দেখার জন্য। অনেকে আবার সেই ডিম কিনেও নিয়ে যাচ্ছেন। 

আরও পড়ুন- ৭ দিন আগেই বৃষ্টির পূর্বাভাস দেয় হাজার বছরের পুরনো এই মন্দির, এর রহস্য আজও অজানা

খামার মালিক শিয়াবুদ্দিন প্রথমে ভেবেছিলেন, হয়তো মুরগিদের দেওয়া খাবারে কোনও সমস্যা হয়েছে। যার ফলে ডিমের কুসুমের রঙ এর পরিবর্তন হয়েছে। তবে এই বিশয়ে পশুচিকিত্‍সকরা জানিয়েছেন,খাবারের থেকে কুসুমের রঙ এর এই পরিবর্তন হওয়া সম্ভব নয়। এই ডিম নিয়ে বৈজ্ঞানিক পর্যালোচনা হওয়া প্রয়োজন। তবেই এই বিষয়ে যাবতীয় তথ্য পাওয়া সম্ভব। শিয়াবুদ্দিন জানিয়েছেন, ঘটনাটি ঘটেছিল ৯ মাস আগে। প্রথম তিনি দেখেছিলেন ডিমের কুসুমের রঙ সবুজ। এরপর বাকি ডিমগুলো ফুটে যখন বাচ্চা বের হয়, সেগুলি দেখতে একেবারেই সাধারণ মুরগির মতোই। বিশেষ কোনও তফাৎ চোখে পড়েনি। তবে সাধারণ মুরগির তুলনায় এই বাচ্চাগুলি আকারে একটু ছোট। আপাতত শিয়াবুদ্দিন-এর খামারে এমন ৭ টি মুরগি রয়েছে যারা সবুজ রঙের কুসুম-এর ডিম দেয়।